রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের ৫ বছর, ১০টি ক্যাম্পে পালিত হবে গণহত্যা দিবস

fec-image

২৫ আগস্ট রোহিঙ্গা গণহত্যার ৫ বছর। মিয়ানমার সরকারের হত্যা, ধর্ষণ ও নানান নির্যাতনের মুখে ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট রোহিঙ্গার ঢল নামে বাংলাদেশে। এই দিনটি রোহিঙ্গাদের জন্য একটি কালো অধ্যায় হিসেবে স্মরণীয় হয়ে রয়েছে।

তাই প্রতি বছর ২৫ আগস্ট রোহিঙ্গারা শান্তিপূর্ণভাবে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে থাকে। ঠিক এবারও উখিয়ার ১০টি ক্যাম্পে গণহত্যা দিবস উপলক্ষে কর্মসূচি পালনের উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানা গেছে।

বালুখালী ১২ নাম্বার ক্যাম্পের বাসিন্দা মো. নওয়াজ (৩০) জানান, ২৫ আগস্ট গণহত্যা দিবস আখ্যা দিয়ে আমরা সকাল ৯টায় বালুখালী ১২ নাম্বার ক্যাম্পে শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন করবো। ইতিমধ্যে ব্যানার-ফেস্টুনসহ আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

কুতুপালং লম্বাশিয়া টু-ইস্টের বাসিন্দা আবুল হাশেম বলেন, ‌রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করার ৫ বছর পূর্ণ হয়েছে। বাংলাদেশ সরকার আমাদেরকে খাদ্য, বস্ত্র, চিকিৎসা সহায়তা দিয়ে শুরু থেকে সব ধরনের সহযোগিতা করে আসছে। এরপরেও আমাদের মাতৃভূমি মিয়ানমারে ফেরত যেতে চাই।

ক্যাম্পে নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন-৮ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) মো. কামরান হোসেন বলেন, ২৫ আগস্ট রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের ৫ বছর। তাই রোহিঙ্গারা বিভিন্ন ক্যাম্পে শান্তিপূর্ণভাবে মানববন্ধন করার জন্য শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার (আরআরআরসি) নিকট থেকে অনুমতি নিয়েছে। তবে বড় ধরনের কোন গণজমায়েত করা যাবে না। রোহিঙ্গাদের বিশেষ দিন হিসেবে সর্বোচ্চ ১৫০ থেকে ২০০ লোকের জন সমাগম করতে পারবে একেকটি ক্যাম্পে। কোন ধরনের বিশৃঙ্খলা যাতে না হয়, সে জন্যে প্রতিটি ক্যাম্পে এপিবিএন পুলিশ মোতায়েন থাকবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে জানার জন্য অতিরিক্ত শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মো. শামসুদ্দোজা নিকট একাধিক ফোন করেও তাকে পাওয়া না যাওয়ায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × 2 =

আরও পড়ুন