সৌন্দর্য বৃদ্ধি ও রুচিবোধের পরিচয় দেবে বিছানার চাদর

fec-image

শোবার ঘরটিকে একটু পরিপাটি করে রাখতে কত কিছুই তো করতে হয়। শোবার ঘরের সৌন্দর্য ফুটিয়ে তুলতে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখে বিছানার চাদর। ঘরকে নান্দনিক করে সাজিয়ে তুলতে বিছানার চাদরের প্রতি আলাদা খেয়াল রাখা আবশ্যক। বিশেষ করে ঘরের মাপ অনুযায়ী বিছানার চাদর ব্যবহার করা উচিত। বিছানার চাদরের তাৎপর্য শুধুই আরামদায়ক নয় বরং আপনার বিছানার চাদর আপনার রুচিবোধের পরিচয় দিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। তাই চাদর নির্বাচনের ক্ষেত্রে বেশ কয়েকটি বিষয়ের দিকে নজর দেওয়া প্রয়োজন। যেমন ধরুন বিছানার আয়তন, ঘরে থাকা আসবাবের ধরন, দরজা জানালার পর্দার রং ইত্যাদি।

আপনার ঘর যদি হয় বেশ প্রশস্ত, তাহলে বড় বড় মোটিফের চাদর বেশ মানানসই। কারণ, ছোট মোটিফ অথবা হালকা রং চোখে পড়ে না প্রশস্ত ঘরে। ঘর ফাঁকা ফাঁকা মনে হতে পারে সেক্ষেত্রে। তাই বড় ঘরে রাখুন বড় মোটিফ ওয়ালা গাঢ় রঙের চাদর।

এবার আসা যাক মাঝারি ধরনের ঘরের কথায়। মোটিফ যুক্ত চাদর ব্যবহার করা যায়। তবে জ্যামিতিক মোটিফ ওয়ালা চাদর বেশ মানানসই মাঝারি ঘরের জন্য। বড় ও মাঝারি ঘরের জন্য ক্যাটওয়াক বা এপ্লিকের চাদর নিতে পারেন।

আবার ধরুন আপনার ঘর ছোট অথবা ঘরে খুব বেশি আসবাব রয়েছে। তা হলে হালকা রঙের ছিমছাম চাদর ব্যবহার করতে পারেন। হালকা রঙের চাদরে ঘর প্রশস্ত দেখাবে। হালকা ব্লক কিংবা প্রিন্টের চাদর বাছাই করতে পারেন।

কাঠের রং বা বার্নিশ রঙের আসবাব থাকলে যে কোনও রঙের চাদর ব্যবহার করা যেতে পারে। আবার আসবাব যদি হয় কালো বা সাদা, তা হলে মানানসই রং ও প্যাটার্নের চাদর বাছাই করতে হবে। দেওয়ালের রঙের দিকটিও মাথায় রাখতে হবে চাদর নির্বাচনের সময়। যেমন ধরুন দেওয়ালের রং যদি হয় অফহোয়াইট, তা হলে যে কোনও রঙের চাদর মানিয়ে যায়। কিন্তু দেওয়ালের রং যদি ভিন্ন হয়, সেক্ষেত্রে চাদরের রং ও প্যাটার্নের দিকটি মাথায় রাখতে হবে।

অন্যদিকে পর্দার রঙের সঙ্গে চাদরের রঙের সামঞ্জস্য থাকলে ঘরে আসে এক অন্য লুক। বেশ কিছু অনলাইন শপ পর্দার সঙ্গে মিলিয়ে বিছানার চাদর তৈরি করছে আজকাল। নিউমার্কেট অথবা অনলাইন শপগুলিতে বিভিন্ন ডিজাইনের চাদর পেয়ে যাবেন। বাজারে প্রায় ৩০০ থেকে শুরু করে ১০-১২ হাজার টাকায় পাওয়া যাবে এই ধরনের চাদরগুলি।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 + 1 =

আরও পড়ুন