ইসরায়েলে সন্ধান মিললো ১২শ বছরের পুরোনো মসজিদের

fec-image

ডয়চে ভেলের এক প্রতিবেদনে জানানো হয় ইসরায়েলের নেগেভ অঞ্চলে একটি প্রাচীন মসজিদের পুরাকীর্তির সন্ধান পাওয়া গেছে। ১,২০০ বছরের পুরনো এই ভবনটি ইসরায়েলে আবিষ্কৃত প্রাচীনতম মসজিদগুলির মধ্যে একটি বলে ধারণা করছেন প্রত্নতাত্ত্বিকেরা।

প্রত্নতাত্ত্বিকেরা নেগেভ মরুভূমিতে মসজিদের কাছে একটি খামার এবং একটি ছোট বসতিও আবিষ্কার করেছেন।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) প্রত্নতাত্ত্বিকরা ঘোষণা করেছেন যে, তারা দক্ষিণ ইসরায়েলের নেগেভ মরুভূমিতে ১,২০০ বছরের পুরনো একটি মসজিদ আবিষ্কার করেছেন। বেদুইন শহর রাহাতের কাছে অত্যন্ত অস্বাভাবিক এই আবিষ্কারটি করা হয়েছে।

পুরাকীর্তি কর্মকর্তারা বলছেন, এই অঞ্চলটি কীভাবে খ্রিস্ট–অধ্যুষিত অঞ্চল থেকে ইসলামের দিকে ধাবিত হয়েছে, মসজিদটি সেটিকেই সামনে এনেছে।

এক বিবৃতিতে ইসরায়েল পুরাকীর্তি কর্তৃপক্ষ (আইএএ) বলেছে, মসজিদের ধ্বংসাবশেষগুলো এক হাজার ২০০ বছরের বেশি পুরোনো হবে। মসজিদটিতে একটি বর্গাকার কক্ষ রয়েছে। ওই কক্ষের একটি দেয়াল পবিত্র মক্কার (কাবা শরিফ) দিকে মুখ করা। দেয়ালটির একটি ছোট খোপ (মিম্বারের অংশ) দক্ষিণ দিকে বের করা।

প্রসঙ্গত, পবিত্র মক্কা শরিফ ইসরায়েলে দক্ষিণ-দক্ষিণপূর্ব দিকে অবস্থিত। ফলে সেদিকে মুখ করে মসজিদ নির্মাণ করাই যুক্তিযুক্ত।

পুরাকীর্তি কর্মকর্তাদের ধারণা, মসজিদটি সম্ভবত ওই এলাকার কৃষকরা ব্যবহার করতেন, কারণ খননের সময় ষষ্ঠ বা সপ্তম শতাব্দীর একটি খামারও সেখানে পাওয়া গেছে। এছাড়াও সেখানে একটি ছোট বসতিও পাওয়া গেছে, যার মধ্যে থাকার ঘর, উঠান, স্টোরেজ রুম এবং খাবার তৈরির জন্য ফায়ারপ্লেস রয়েছে।

এই এলাকার কাছে তিন বছর আগে আরও একটি মসজিদের পুরাকীর্তির সন্ধান পাওয়া যায়। ওই মসজিদটিও ষষ্ঠ বা সপ্তম শতাব্দীর সময়ের বলে মনে করা হচ্ছে। প্রথম দিকে ব্যাপকভাবে পরিচিত মসজিদগুলোর মতো এই দুটি মসজিদও সুপরিচিত ছিল।
সূত্র: ঢাকাট্রিবিউন

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × four =

আরও পড়ুন