উখিয়ায় ছাগলের দামে ১৭টি গরুর নিলাম সম্পন্ন, কাঙ্খিত রাজস্ব পায়নি সরকার

fec-image

কক্সবাজারের উখিয়ায় নিয়ম না মেনে গরুর নিলামের অভিযোগ উঠেছে বালুখালী কাস্টম কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। প্রকাশ্যে দরপত্র আহবান কিংবা মাইকিং না করে রাতের আধাঁরে গোপনে সিন্ডিকেট সদস্যদের সাথে আতাঁত পূর্বক তড়িগড়ি করে নিলাম সম্পন্ন করেছে এমনটি অভিযোগ তালিকাভূক্ত ঠিকাদারদের। তাদের দাবি অনিয়ম করে অসাধু কর্মকর্তারা লাভবান হলেও সরকার বিপুল পরিমাণ রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হয়েছে।

সূত্রে জানা গেছে গত ১৩ জুন রাতে বালুখালী কাস্টম অফিসে ১৭টি গরু নিলাম হয়েছে মাত্র ৩ লক্ষ টাকায়।

পালংখালী ইউনিয়ন আ.লীগ নেতা শাহাদাৎ হোসেন জুয়েল বলেন, সংশ্লিষ্টদের ভাগ-বাটোয়ারার মাধ্যমে এসব হচ্ছে।

গণমাধ্যমকর্মী ইমরান খান বলেন, দুর্নীতিবাজ কর্তা ব্যক্তিদের যোগসাজসে বালুখালী কাস্টমস এ ১৭টি গরু নিলাম দিয়েছে মাত্র ৩ লাখ টাকায়। এতে সরকার বিপুল পরিমাণ রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কাস্টম অফিসের কয়েকজন তালিকাভুক্ত ঠিকাদার অভিযোগ করে জানিয়েছে কাস্টমস অফিসের অসাধু কর্মকর্তারা জনৈক ঠিকাদারের সাথে গোপনে আতাঁত করে গরু গুলোর নিলাম সম্পন্ন করে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বালুখালী কাষ্টমস কর্মকর্তা অজিত রুদ্র বলেন, গরুগুলো দুইদিন পর খাদ্য এবং রাখার জায়গা সংকটের কারণে দ্রুত নিলাম প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হয়েছে। ৩০জন নিলামে অংশগ্রহণকারীদের উপস্থিতিতে সর্বোচ্চ দরদাতা করিম এন্টারপ্রাইজকে ভ্যাটসহ সাড়ে ৩ লক্ষ টাকায় গরুগুলো নিলামে বিক্রি করা হয়। তাছাড়া টেকনাফের রাজস্ব কর্মকর্তা সব্যসাচী ও বিভাগীয় উপ-কমিশনারের অনুমতি নিয়ে নিলাম প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: উখিয়া, গরু, নিলাম
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 − twelve =

আরও পড়ুন