কঠিন অবস্থানে নাগা বিদ্রোহীরা

fec-image

ভারত সরকারের সাথে শান্তিচুক্তির প্রক্রিয়ায় অংশ নিয়েছিল নাগাল্যান্ডের সবচেয়ে অগ্রগামী সশস্ত্র বিদ্রোহী গোষ্ঠী- এনএসসিএন-আইএম। শুক্রবার তারা বলেছে যে, আলাদা পতাকা এবং ইয়েহজাবো (সংবিধান) ছাড়া শান্তি চুক্তি হলে সেটা সম্মানজনক সমাধান হবে না।

শুক্রবার এনএসসিএন-আইএমের যৌথ কাউন্সিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে ‘নাগা জনগণের ঐতিহাসিক ও রাজনৈতিক অধিকার’ এবং কিভাবে ‘ইন্দো-নাগা রাজনৈতিক আলোচনা’ এ পর্যায়ে এসেছে, সেটি নিয়ে আলোচনা হয়। নাগাল্যান্ডের দিমাপুরের হেবরনে সংগঠনের কেন্দ্রীয় সদর দফতরে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

এনএসসিএন-আইএম এমন সময় এই শক্ত অবস্থান নিলো, যখন এই গ্রুপ এবং মধ্যস্থতাকারী নাগাল্যান্ডের গভর্নর আর এন রবির মধ্যে ভিন্নমতের কারণে শান্তি আলোচনা অচল হয়ে পড়েছে। এনএসসিএন-আইএম এক প্রেস বিবৃতিতে বলেছে, “বৈঠকে সর্বসম্মতিক্রমে এই প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে যে, ‘ইন্দো-নাগা রাজনৈতিক সমাধানকে সম্মানজনক ও গ্রহণযোগ্য হতে হলে চুক্তির মধ্যে অবশ্যই নাগা জাতীয় পতাকা এবং ইয়েহজাবো (সংবিধান) থাকতে হবে”।

তারা আরও বলেছে যে, কেন্দ্রীয় সরকার এবং এনএসসিএন-আইএমকে অবশ্যই এমন একটা ‘চুড়ান্ত চুক্তির’ চেষ্টা করতে হবে, যেটা ২০১৫ সালের ৩ আগস্টে স্বাক্ষরিত ঐতিহাসিক ফ্রেমওয়ার্ক চুক্তির ভিত্তিতে সম্পাদিত হবে।

এমন সময় এই বিবৃতি প্রকাশ করা হলো যখন এনএসসিএন-আইএমের সাধারণ সম্পাদক থুইংগালেং মুইভাহের নেতৃত্বের সংগঠনের শীর্ষ নেতাদের একটি প্রতিনিধি দল নয়াদিল্লীতে গেছেন এবং আলোচনাকে এগিয়ে নেয়ার জন্য মি. রবিকে বাদ দিয়েই তারা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও গোয়েন্দা ব্যুরোর কর্মকর্তাদের সাতে আলোচনার চেষ্টা করছেন।

তাদের উদ্দেশ্য হলো মতপার্থক্যগুলো দূর করে একটা সম্ভাব্য চুড়ান্ত চুক্তি ঠিক করা। ১৯৯৭ সাল থেকে এই চুক্তির চেষ্টা চলে আসছে।

চুক্তির ব্যাপারে সরকারের অবস্থান থেকে অনেকটা সরে এসে গত মাসে এনএসসিএন-আইএম দাবি করে যে, ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত ফ্রেমওয়ার্ক চুক্তির মাধ্যমে কেন্দ্রীয় সরকার নাগা জনগণের সার্বভৌমত্বের দাবি মেনে নিয়েছে, যেখানে বলা হয়েছে যে, নাগারা ভারতের সাথে সহাবস্থান করবে, তবে তাদের সাথে এক হবে না।

এদিকে, সরকারি সূত্রমতে, অন্যান্য নাগা গ্রুপগুলোর যৌথ প্ল্যাটফর্ম নাগা ন্যাশনাল পলিটিক্যাল গ্রুপস (এনএসপিজি) বলেছে যে, আলাদা পতাকা ও সংবিধান ছাড়াই তারা সরকারের সাথে চুক্তির জন্য প্রস্তুত আছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × 2 =

আরও পড়ুন