চকরিয়ায় হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে ছেলেকে হত্যার অভিযোগ পিতার বিরুদ্ধে

fec-image

কক্সবাজারের চকরিয়ায় কলিম উল্লাহ (২৭) নামে এক যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে পিতার বিরুদ্ধে। বুধবার (৮ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৬টার দিকে চকরিয়া পৌরসভা এলাকায় এ ঘটনা ঘটলেও রাত ১০টার দিকে জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় কলিম।

নিহত কলিম উল্লাহ চকরিয়া পৌরসভার ৭নম্বর ওয়ার্ডের আকবরিয়া পাড়া এলাকার কামাল উদ্দিনের ছেলে। কলিম উল্লাহ পেশায় একজন রাজমিস্ত্রী। সে দীর্ঘদিন ধরে বাড়ির পাশে একটি ভাড়া বাসায় স্ত্রী-সন্তান নিয়ে বসবাস করে।

নিহতের স্ত্রী শাহিদা বেগম বলেন, গতকাল বুধবার সন্ধ্যার দিকে আমার স্বামী কলিম উল্লাহ দুই ছেলেকে নিয়ে বাজারে যায়। বাজার থেকে ফেরার পথে আমার শ্বশুর কামাল উদ্দিন তার ছেলে কলিম উল্লাহকে হাতুড়ি দিয়ে মাথায় আঘাত করে। এতে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। পরে আমার চাচা শ্বশুর জয়নাল ও দেবর আরমান স্থানীয় প্রতিবেশী ইমন মিলে কলিম উল্লাহকে ধরে নিয়ে বাড়ির সামনে একটি গাছের সাথে বেঁধে আবারও হাতুড়ি দিয়ে মারতে থাকে। একপর্যায়ে কলিম উল্লাহর অবস্থা আশংকাজনক হয়ে পড়লে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। আহত কলিম উল্লাহর অবস্থা অবনতি হওয়ায় তাকে জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। ওইদিন রাত ১০টার দিকে তাকে সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরো বলেন, কয়েকদিন আগে আমার ছেলে বায়েজিদ মোস্তফা বাবা কলিম উল্লাহর কাছ থেকে টাকা নিয়ে চকলেট কিনতে যায় দোকানে। এসময় আমার চাচা শ্বশুর জয়নাল তাকে অহেতুক মারধর করে। পরে বায়েজিদ ঘটনাটি তার বাবাকে জানায়। বায়েজিদের বাবা কলিম উল্লাহ কি জন্য তার ছেলেকে মারধর করেছে জানতে চায় চাচা জয়নালের কাছে। এতে দু’জনের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। পরে স্থানীয় এক কাউন্সিলর বিষয়টি বিচার-সালিশের মাধ্যমে সমাধান করে দেন।

নিহতের ঘটনার ব্যাপারে চকরিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো.আশরাফ হোসেন বলেন, ঘটনাটি জেনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: চকরিয়া, হত্যা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 − 9 =

আরও পড়ুন