চতুর্থ দিনও বন্ধ বান্দরবানের সঙ্গে সারাদেশের সড়ক যোগাযোগ

fec-image

গত এক সপ্তাহে টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলের পানিতে বান্দরবানে চতুর্থ দিনের মতো বন্ধ ছিল সড়ক যোগাযোগ। শুক্রুবারও বান্দরবান-কেরানীহাট সদকের বড়দুয়ারা এলাকায় নৌকা ও ভ্যানগাড়ি যোগে প্রায় অর্ধ কিলোমিটার রাস্তা পারাপার হয়েছে লোকজন। এতে করে পাহাড়ি জেলা বান্দরবানে জনজীবন প্রায় অচল হয়ে পড়ে।

সাঙ্গু ও মাতামুহুরী নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে ওই এলাকাটি ঢুবে থাকায় বান্দরবানে গত চারদিন কোন যানবাহন আসা যাওয়া করতে পারেনি। এতে করে সাধারণ মানুষের পাশাপাশি ব্যবসায়ীরা তাদের মালামাল পরিবহণে চরম দূর্ভোগে পড়ে। যার কারণে বাজারে ব্যবসায়ীদের মাঝে মজুদ সংকট দেখা দিয়েছে।

এদিকে বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে সাঙ্গু ও মাতামুহুরী নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বান্দরবানের বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয়। জেলা শহরের আর্মিপাড়া, শেরেবাংলা নগর, মেম্বারপাড়া, বালাঘাটা, আমবাগানসহ বিভিন্ন এলাকায় পাচঁ থেকে ৭ফুট পানিতে তলিয়ে যায়। ওইসব এলাকার মানুষ প্রশাসনের ঘোষিত আশ্রয়ন কেন্দ্রসহ বিভিন্ন আত্মীয় স্বজন এবং হোটেলে আশ্রয় নেয়। আশ্রয় কেন্দ্রসহ দূর্গত এলাকার মানুষের মাঝে জেলা প্রশাসন, সেনাবাহিনী ও পৌরসভার পক্ষ থেকে রান্না করা খাবারসহ ত্রাণ তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন- বান্দরবানে ১৯৯৭ সনের বন্যার পর এমন পানি আর কখনো হয়নি। শহরের নিম্ন এলাকা ছাড়াও বাসস্টেশন, হাসপাতাল রোড, উজানীপাড়া এলাকাগুলো পর্যন্ত ঢুবে যায় বন্যার পানিতে। জেলা শহর ছাড়াও পাহাড় ধস ও বন্যার পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় আলীকদম রুমা, থানচি উপজেলা সড়কে যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। পাহাড় ধসের ঘটনাও ঘটেছে কয়েকটি। তবে বড় ধরনের কোন দূর্ঘটনা ঘটেনি এই বন্যায়।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × four =

আরও পড়ুন