ঠাণ্ডা মাথার খুনি প্রদীপের ফাঁসির দাবি

fec-image

মেজর (অব.) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার আসামি বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাসসহ সকল আসামির ফাঁসির দাবিতে কক্সবাজারে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধনে দৈনিক কক্সবাজার বানীর সম্পাদক ও প্রকাশক ফরিদুল মোস্তাফা খান বলেন, ওসি প্রদীপ ঠাণ্ডা মাথার খুনি। টাকার জন্য তিনি ধরে ধরে মানুষ খুন করতেন। মাদকের সাম্রাজ্য ও অপরাধ চক্র নিয়ন্ত্রণ ছিল তার হাতে। প্রদীপের দায়িত্বকালে কত মায়ের বুক খালি হয়েছে; নিরপরাধ মানুষ আসামি করেছে, সঠিক হিসাব অজানা। যেটুকু তথ্য প্রকাশ হয়েছে, তাতেই পিলে চমকানোর অবস্থা। তাকে শতবার ফাঁসিতে ঝুলালেও ক্ষুব্ধ মানুষের আত্মা শান্তি পাবে না।

বক্তব্যে ফরিদ বলেন, আমি নিজেও প্রদীপের মির্মম নির্যাতনের শিকার, যা দুনিয়াবাসী ইতোমধ্যে জেনেছে। তিনি বলেন, দেশীয় ও অন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোতে ভয়ংকর প্রদীপ ও তার লালিত বাহিনীর অনেক অজানা খবর প্রকাশ হয়েছে। ভুক্তভোগি অনেকে থানা ও আদালতে মামলা করেছে।

বাংলাদেশ সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির ব্যানারে আয়োজিত মানববন্ধনে প্রদীপের জুলুম, নির্যাতনসহ নানামুখি অপরাধের চিত্র উপস্থাপন করেন সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তাফা খান।

তিনি বলেন, ওসি প্রদীপ সরকারি চেয়ারে বসে মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়েন। নিজেই মাদক সেবন করতেন। অপরাধ নিয়ন্ত্রণ ও ঢাকতে কিছু দালাল পোষতেন। তার এসব অপরাধ তুলে ধরে সংবাদ প্রকাশ করেছিলাম। তাতে ক্ষুব্ধ হন প্রদীপ। আমাকে ঢাকার বাসা থেকে ধরে এনে ‘নিজস্ব টর্চারসেলে’ ঢুকিয়ে বর্বর কায়দায় নির্যাতন করেছে। আমার বিরুদ্ধে একে একে ৬টি মিথ্যা মামলা দিয়েছে। এসব সাজানো মামলায় আমাকে প্রায় এক বছর জেল খাটতে হয়েছে।

মানববন্ধনে ফরিদুল মোস্তাফা খানসহ ওসি প্রদীপের হাতে নির্যাতিত টেকনাফ, উখিয়াসহ বেশ কয়েটি এলাকার নির্যাতিত পরিবারের লোকজন অংশ গ্রহণ করে। তারা প্রদীপ ও তার লালিত পালিত সিন্ডিকেট সদস্যদের ফাঁসি দাবি করেছে। সেই সঙ্গে সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তাফার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত সব মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × two =

আরও পড়ুন