ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী গরয়া নৃত্য ও সুকুই খেলার হিড়িক

fec-image

পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসরত বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মধ্যে অন্যতম হলো ত্রিপুরা সম্প্রদায়। পার্বত্য অঞ্চলের খাগড়াছড়ির বিভিন্ন স্থানে বসবাসরত ত্রিপুরাদের প্রধানতম সামাজিক ও ধর্মীয় উৎসব বৈসুক বা বৈসু। এই বৈসুকে ঘিরে পাহাড়ে পাহাড়ে,পাড়ায়- পাড়ায় তাদের ঐতিহ্যবাহী ‘গরয়া বা গরাইয়া নৃত্য পরিবেশন করে থাকে।

বৈসু শুরু হয় বর্ষবরণের ১ দিন পূর্ব থেকে। আর বৈসু শুরুর পূর্বে গরয়া বা গরাইয়া নৃত্যের দল বেরিয়ে পড়ে। তাদের বিচরণ পাহাড়ের এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে। ঘুরে ঘুরে পাহাড়ি ত্রিপুরা পল্লীর বাড়িতে বাড়িতে পরিবেশিত হয় এই নৃত্য। তবে ঐতিহ্যবাহী ও ধর্মীয় এই নৃত্য ‘গরয়া’ মূলত ত্রিপুরাদের হলেও এখন অন্যান্য জনগোষ্ঠীর মধ্যেও ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। তাই বৈসুতেও পাহাড়ের সব মানুষের কাছেই এখন আগ্রহের বিষয় গরাইয়া নাচ।

ত্রিপুরা শিশুরা সুকুই (গিলা) বিচি দিয়ে খেলতে ভালোবাসে, যাকে তারা ‘সুকুই থুংমুং’ বলে। সুকুই (গিলা)খেলা ত্রিপুরাদের সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী খেলা। বৈসুতে আসলেই ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের ছেলে-মেয়ে, যুবক-যুবতীসহ নানান বয়সের নারী-পুরুষেরা এই খেলায় মেতে উঠে। যেটাকে চাকমা সম্প্রদায়েরা গিলা হেলা বলে থাকে,মারমা সম্প্রদায় বলে থাকে আলারী বা খোঞ্যাং আকাজা।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন