মাওয়া-জাজিরার ফলক উন্মোচনের মধ্য দিয়ে দুয়ার খুলল দখিনাবাসীর

পদ্মা সেতু গর্ব, সম্মান ও যোগ্যতার প্রতীক : প্রধানমন্ত্রী

fec-image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা করেছেন, পদ্মা সেতু শুধু ইট, সিমেন্ট, ইস্পাত ও লোহার একটি ভৌত অবকাঠামো নয়; এটি জাতির গর্ব, সম্মান ও যোগ্যতার প্রতীক।

তিনি বলেন, ‘সেতুটি বাংলাদেশের জনগণের। এর সাথে আমাদের আবেগ, সৃজনশীলতা, সাহস, সহনশীলতা ও আমাদের অধ্যবসায় জড়িত।’

আজ (২৫ জুন) ফলক উন্মোচন ও মোনাজাতের মধ্য দিয়ে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা । প্রথমে মাওয়া প্রান্ত থেকে পদ্মা সেতু পাড়ি দিয়ে জাজিরা প্রান্ত উন্মোচন করে পদ্মা সেতুর শুভ উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

মাওয়া প্রান্তরে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য দেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব আনোয়ারুল ইসলাম।

অংশ নিয়েছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, দেশের রাজনৈতিক নেতা, বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও উন্নয়ন সহযোগী সংস্থার প্রতিনিধি, সাংবাদিক, শিক্ষকসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার প্রতিনিধিরা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনা বলেন, ‘ইতিহাসের এক বিশেষ সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে আমরা। কিছুক্ষণের মধ্যেই বাংলার মানুষের গর্বের ‘পদ্মা সেতুর শুভ উদ্বোধন হতে যাচ্ছে। এ সেতু নির্মাণের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সব কর্মকর্তা-কর্মচারী, দেশি-বিদেশি বিশেষজ্ঞ পরার্শক, ঠিকাদার, প্রকৌশলী, প্রযুক্তিবিদ, শ্রমিক, নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত সেনাবাহিনীর সদস্যসহ সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। ধন্যবাদ জানাই পদ্মা সেতুর দুই প্রান্তের অধিবাসীদের যাদের জমিজমা ও বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তাদের এই ত্যাগ ও সহযোগিতা জাতি চিরদিন স্মরণ রাখবে। ’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাঙালি বীরের জাতি। বাঙালির ইতিহাসের প্রতিটি বাঁক রঞ্জিত হয়েছে ত্যাগ-তিতীক্ষা আর রক্ত ধারায়। কিন্তু বাঙালি আবার মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। ’ এসময় প্রধানমন্ত্রী কবির ভাষায় দৃপ্ত কণ্ঠে বলেন, ‘যতবারই হত্যা করো, জন্মাবো আবার। দারুণ সূর্য হবো, লিখবো নতুন ইতিহাস। ’

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: পদ্মা সেতু, প্রধানমন্ত্রী, যোগ্যতা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fourteen − two =

আরও পড়ুন