বাইশারীতে আইন-শৃংখলার অবনতির ফলে মাদক ও সন্ত্রাস বেড়েছে

fec-image

বাইশারীতে পুলিশ, ইউনিয়ন পরিষদ ও আইন-শৃখলার দায়িত্বে নিয়োজিত অন্যান্য সদস্যদের মাঝে চেইন অব কমান্ড না থাকা ও মদ-জুয়া-সস্ত্রাস বৃদ্ধি পাওয়ায় বর্তমানে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। শুক্রবার (১০ জুন) সকাল ও বিকেলে বাইশারীর বিভিন্ন ঘটনা, সাংবাদিক রশিদের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন, যুবদলের পাল্টা-পাল্টি মিছিল, মদ, জুয়া ও সন্ত্রাস বিষয়ে অনুসন্ধান করে এ সব তথ্য বেরিয়ে আসে।

আর এসব নিয়ে ৯ জুন নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভাতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন খোদ বাইশারী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. আলম কোম্পানী আর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মংহ্লা ওয়াই মার্মাসহ অনেকে।

এ সময় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মংহ্লা ওয়াই মার্মা বলেন, বাইশারীতে মদ ও জুয়া অনেক বেড়েছে। যা থামানো যাচ্ছে না কোনোভাবেই। তিনি এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সভায়।

মো. আলম চেয়ারম্যান সভায় বলেন, বর্তমানে অপরাধীরা সক্রিয় হয়েছে। অবৈধ কর্মকাণ্ড বেড়েই চলেছে বাইশারীতে। অবৈধ স-মিল ও সোর্সের ব্যানারে সন্ত্রাসীরা কাজ করছে বেপরওয়াভাবে। যা নিয়ে আইন-শৃংখলার চরম অবনতি হচ্ছে।

এ দিকে সাংবাদিক আবদুর রশিদের উপর হামলার প্রতিবাদে শুক্রবার বাদ জুমা পেঠান আলী পাড়া জামে মসজিদ সংলগ্ন সড়কে বিশাল মানববন্ধন করেছে পেঠান আলী পাড়া জামে মসজিদের মুসল্লী, পরিচালনা কমিটি ও সমাজের শতশত সদস্য।

একই দিন বিকেলে যুবদলের পাল্টা-পাল্টা শোডাউন। একদিকে উপজেলা আহবায়ক কমিটি অনুমোদিত কমিটি অপর দিকে সিনিয়র যুগ্ন আহবায়কের দেয়া কমিটি। ৬ তারিখের দেয়া কমিটির আহবায়ক বর্তমান মেম্বার নূর মোহাম্মদ পুতুন। পর দিন ৭ জুনে করা গঠিত কমিটির আহবায়ক জসিম উদ্দিন।

জসিম উদ্দিন এ প্রতিবেদককে বলেন, তারা শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪ টায় নতুন কমিটি নিযে নানাভাবে আনন্দ শোডাউন করে জনৈক নেতার কবর জিয়ারত করেছেন।
অপর দিকে মেম্বার নূর মোহাম্মদের আহবায়ক কমিটিকে স্বাগত জানিয়ে বিকেল বেলা সাড়ে ৫ টায় বিশাল আনন্দ শোভাযাত্রা করছেন। এতে স্থানীয় বিএনপির নেতা-কর্মী ছাড়াও উপজেলা বিএনপির সিনিয়র নেতারা অংশ নেন।

তারা দু’দলই নিজেদের বৈধ দাবি করে বলেন, প্রতিপক্ষ অবৈধ। নিজেরাই বৈধ। তবে এ সময় কোন মিছিল বা শোডাউন থেকে হামলা পাল্টা হামলা ঘটনা ঘটে নি

সিনিয়র সাংবাদিক আ্দুর রশিদের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মাঈনুদ্দিন খালেদ, আহবায়ক আবদুল হামিদ, যুগ্ন আহবায়ক আমিনুল ইসলাম, সদস্য সচিব জাহাঙ্গীর আলম কাজল, সদস্য যথাক্রমে জয়নাল আবেদীন টুক্কু, মোহাম্মদ ইউনুস ও মোহাম্মদ শাহীন, পেঠান আলী পাড়া জামে মসজিদ সহ-সভাপতি সব্বির আহমদ, শামসুল আলম, সমাজ কমিটির সর্দার ও মসজিদ সংলগ্ন মাদরাসা কমিটির সভাপতি একরামুল হক রাজু, প্রমুখ। তারা সাংবাদিক রশিদেন উপর হামলার নিন্দা জানিয়ে আসামিদের গ্রেপ্তার করে শাস্তি দেয়ার জোর দাবি জানান।

এ দিকে বাইশারীতে আইন-শৃংখলার ও চেইন অব কমান্ড নেই দাবি বাইশারী তদন্ত কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোসলেম উদ্দিন বলেন, শুধু পুলিশ অপরাধ দমন করবে তা তো না। ইউনিয়ন পরিষদ, গ্রাম পুলিশ, আনসার ভিডিপিসহ অনেকে আছে, তারা কেউ তৎপর না। এ কারণে এ অবস্থা। এসব থেকে উত্তোরণ দরকার

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

17 + thirteen =

আরও পড়ুন