ফলোআপ

বান্দরবানে উদ্ধারকৃত ২৯টি মর্টার শেল নিষ্ক্রিয় করা হয়েছে

fec-image

বান্দরবান সেনা রিজিয়নের আওতাধীন বিজিবির বিশেষ অভিযানে উদ্ধার করা উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন পরিত্যক্ত মর্টার শেল নিস্ক্রিয় করা হয়েছে। মঙ্গলবার(২০জুলাই) দুপুরে থানচির বলিপাড়া ইউনিয়নে ৫নং ওয়ার্ডে মেনরোয়া ম্রো পাড়ার পার্শ্ববর্তী নিরাপদ এলাকায় ওইসব উদ্ধারকৃত পরিত্যক্ত মর্টার শেলগুলো বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নষ্ট করে ফেলা হয়।

সূত্রে জানা গেছে, বান্দরবান রিজিয়নের অধীনস্ত থানচি উপজেলার বলিপাড়া জোন কমান্ডার লে. কর্নেল খন্দকার মুহাম্মদ শরীফ-উল-আলম এর নেতৃত্বে গত ১৯ জুলাই রুমা উপজেলায় ৪নং গ্যালেঙ্গা ইউনিয়নের সিআইও ক্যাম্পের আওতাধীন গ্যালেঙ্গা ইউনিয়ন এলাকায় একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ২৯টি মর্টার শেল উদ্ধার করে। বিজিবির গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে এ বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। বিশেষ টহলদলটি গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ঘটনাস্থলে পৌঁছে মাটির নিচে পরিত্যক্ত অবস্থায় ২৯টি উচ্চ সক্রিয় মর্টার শেলের সন্ধান পায়।

সূত্রমতে, ওই এলাকায় ইতিপূর্বে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দুস্কৃতিকারীদের উপস্থিতির বিষয়ে তথ্য পাওয়া মাত্র প্রতিনিয়ত আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ব্যাপক তৎপরতার চালিয়ে থাকে। ফলে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী-দুস্কৃতিকারীরা অনেক দিন আগেই উচ্চ বিস্ফোরকগুলো মাটিতে পুঁতে রেখে পালিয়ে যায়। বান্দরবান রিজিয়ন তথা বলিপাড়া জোনের বিশেষ তৎপরতার ফলে এ ধরনের উচ্চ বিস্ফোরক উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। এ অবস্থায় এলাকায় বসবাসরত স্থানীয় জনগণ বড় ধরনের দুর্ঘটনা ও অভাবনীয় ক্ষয়ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে। পার্বত্য বান্দরবান জেলায় যে কোন ধরনের সন্ত্রাসীর কার্যত্রুম দমনে বান্দরবান রিজিয়ন তথা আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর গোয়েন্দা তৎপরতা বৃদ্ধিসহ এ ধরনের অপারেশনাল কার্যত্রুম ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে বলে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্রেখ করেন।

এদিকে মেনরোয়া পাড়া বাসিন্দা রেংইয়ান ম্রো(৩০) ও ৩৬১নং থাইক্ষ্যং মৌজা হেডম্যান মংপ্রু মারমা বলেন, দুপুরে ত্রাণ বিতরণে আসেন বিজিবি সদস্যরা। পরে দুপুর দেড়টার দিকে মর্টার শেল বিস্ফোরণের আওয়াজ শুনতে পান। তবে আগে বিজিবির সদস্যরা পাড়ায় থাকায় বিস্ফোরণের বিকট শব্দে কোনো ভয় পাননি তারা।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × one =

আরও পড়ুন