বান্দরবানে ১১ বছরের শিশু ধর্ষিত

fec-image

বান্দরবান সদরের ৬নং রাজবিলা মন জয়পাড়ায় ১১ বছরের শিশুকে ধর্ষণ করা হয়েছে। ধর্ষণের অভিযোগ আনা হয়েছে স্বয়ং বান্দরবান সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান রাজুমং মামার ছেলে লতুমং মারমা (২৮) এর বিরুদ্ধে।

ঘটনার সত্যতা সরেজমিনে পরিদর্শন করে জানা যায়, গত রবিবার (২১ মার্চ) আনুমানিক রাত ৯টার দিকে পান আনার জন্য দোকানে যায় । দোকান থেকে আসার সময় আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা লতুমং মারমা ১১ বছরের শিশুটিকে মুখ চেপে ধরে নিয়ে যায় এবং নির্মমভাবে ধর্ষণ করে । পরে মেয়েটিকে রাস্তার মধ্যে ফেলে পালিয়ে যায়।

এ ঘটনার পর ভিকটিমের পরিবার বাদী হয়ে বান্দরবান সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের (৯/১) ধারায় ধর্ষণ মামলা করেন। যার মামলা নং-৬।

এ বিষয়ে সরাসরি বান্দরবান সদর হাসপাতালে শিশুটির পরিবারের সাথে কথা বললে তারা জানান, একজন ভাইস চেয়ারম্যান যিনি মানুষের সেবা করেন তার ছেলে সমাজে অপকর্ম করে যাচ্ছে যেখানে কোনো সুষ্ঠু বিচার নেই। এক কথায় বলতে গেলে বাবা হলেন সমাজসেবক ভাইস-চেয়ারম্যান, কিন্তু ছেলে হলো ধর্ষণকারী সমাজের শত্রু। বাবার ক্ষমতার শক্তির অপব্যবহার করে ধর্ষণকারী (লতুমং মারমা) এলাকায় এইসব খারাপ কাজ করে যাচ্ছে। এছাড়াও সে বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িত বলে এলাকাবাসী থেকে জানা যায়।

ঘটনার বিষয়ে বান্দরবান সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রাজুমং মারমা জানান, ছেলে অন্যায় করেছে এতে আমি বা আমার পরিবার জড়িত নই। সে বিয়ে করে রাজবিলা থাকে আমরা বান্দরবানে থাকি । আমরা শুনেছি সে এরকম একটা অন্যায় কাজ করেছে, বর্তমানে সে পলাতক । সে যদি অন্যায় করে অবশ্যই শাস্তি পেতে হবে। কারন সে আইনের উর্ধ্বে নয়।

এ বিষয়ে বান্দরবান সদর থানায় ধর্ষণ মামলার তদন্ত পরিদর্শক হিসেবে কর্মরত দায়িত্বরত এসআই নাহিদ হাসান এর সাথে সরাসরি কথা বললে তিনি জানান, আমরা ঘটনার সত্যতা যাচাই-বাছাইয়ের চেষ্টা করছি। বর্তমানে ভিকটিম এর পক্ষ থেকে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা সাপেক্ষে আমরা ঘটনা সত্যতার জন্য তদন্ত করছি। আশা করছি অপরাধীকে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে এবং যারা এই সমস্ত ঘৃণিত কাজের সাথে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে বান্দরবান পুলিশ প্রশাসন তৎপর রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 + nineteen =

আরও পড়ুন