ভর্তি নিয়ে দুশ্চিতায় শিক্ষার্থীরা: উখিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে দুই শিফট চালু’র দাবি অভিভাবকদের

fec-image

সারাদেশের ন্যায় উখিয়া সরকারি বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের লটারির মাধ্যমে ২০২১ শিক্ষাবর্ষে ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে নির্বাচিত ১২০ জন শিক্ষার্থীর ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। কিন্তু বিপরীতে আরও ১২০জন শিক্ষার্থী অপেক্ষমান তালিকায় রেখেছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)। অপেক্ষামান তালিকায় থাকা শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা রয়েছে চরম দুশ্চিতায়।

২০২১ শিক্ষাবর্ষে ৫ম শ্রেণি শেষ করে ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীর অভিভাবক কামাল উদ্দিন বলেন, উখিয়া মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৫ম শ্রেণীতে তার মেয়ের রোল নাম্বার ০৬, কিন্তু লটারিতে উখিয়া বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ে তার মেয়ে অপেক্ষামান তালিকায় রয়েছে। মেয়েকে কোথায় ভর্তি করাবেন এনিয়ে দুশ্চিতায় আছেন সে।

একই কথা রাজা মিয়া নামের আরেক অভিভাবকের৷ তিনি বলেন, উখিয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তার মেয়ের রোল নাম্বার এক, কিন্তু উখিয়া সরকারি বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ে ভর্তির তালিকায় আসেনি। অথচ জেলার শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করতে সক্ষম হন তার মেয়ে।

এধরনের অভিযোগ অহরহর অভিভাবকের। তাদের দাবি দেশের অন্যান্য সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ন্যায় উখিয়া সরকারি বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ে দুই শিফটের মাধ্যমে তাদের ছেলে/মেয়েদের ভর্তির সুযোগ করে দিয়ে তাদেরকে দুশ্চিতা থেকে মুক্তি দেওয়া হোক।

অভিভাবক ও শিক্ষানুরাগীরা জানান, উখিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুই শিফট চালু করার পর্যাপ্ত শিক্ষক, ক্লাস রুম,আসবাবপত্র সহ প্রয়োজনীয় উপকরণ সামগ্রী রয়েছে, কারণ সরকারি করণের পূর্বে উক্ত বিদ্যালয়ে ৫/৬শ ছাত্র/ছাত্রী ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে ভর্তি হয়ে অধ্যায়ন করেছে৷

তারা আরও জানান, ইতিমধ্যে উখিয়ার পাশ্ববর্তী সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তাদের ভর্তি কার্যক্রম প্রায় শেষ করেছে। তাই সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে অপেক্ষমান তালিকায় থাকা শিক্ষার্থীরা কোথায় ভর্তি হবেন তা নিয়ে কোন সুরাহা খুঁজে পাচ্ছেন না । তবে উপজেলা নির্বাহী অফিসার যেহেতু উখিয়া সরকারি বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি, তাই সবার দৃষ্টি এখন ইউএনও’র দিকে। তিনি চাইলে একমাত্র এর সমাধান দিতে পারবেন এমন প্রত্যাশা সকলের।

উখিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উখিয়া সরকারি বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি নিজাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, বিষয়টি আসলে চিন্তা করার। এনিয়ে আমি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়ার চেষ্টা করবো।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: উখিয়া, শিক্ষার্থীরা, সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seven + six =

আরও পড়ুন