মানিকছড়ির মডেল মসজিদ ও ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণে তদারকি নেই

fec-image

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে সরকার সারা দেশে ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের অংশ হিসেবে খাগড়াছড়ির মানিকছড়িতে মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ কাজে লোকাল বালু ব্যবহার করে দিব্যি ঢালাই কাজ চালিয়ে যাচ্ছে ঠিকাদার। আর এ প্রকল্প বাস্তবায়নকালে গণপূর্ত বিভাগের কোন তদারকি কর্মকর্তা উপস্থিত না থাকায় কাজের মান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন জনপ্রতিনিধিরা।

গণপূর্ত অধিদপ্তরের অধীনে সরকার দেশব্যাপি ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র স্থাপনের অংশ হিসেবে খাগড়াছড়ি মানিকছড়ি উপজেলায় আনুষ্ঠানিকভাবে এ নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন হয় গত ২৪ সেপ্টেম্বর। ইতোমধ্যে বিশাল এ স্থাপনার পিলার ঢালাইয়ের কাজ চলছে নিম্নমানের লোকাল বালু দিয়েই!

এছাড়া ঢালাই কাজের সময় কোন প্রকৌশলী কিংবা তদারকি কর্মকর্তা না থাকার সুযোগে ঠিকাদারের লেবাররা যাচ্ছেতাই ভাবে কাজ চালিয়ে যাওয়ায় বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) সকালে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম বাবুল সরেজমিনে এসে কাজের মান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন এবং তাৎক্ষনিকভাবে তিনি বিষয়টি উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউএনওকে অবহিত করলে তাঁরা সরেজমিনে আসেন এবং লোকাল বালু ব্যবহারসহ কাজে ত্রুটি পেয়ে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন।

এ প্রসঙ্গে ঠিকাদারের স্থানীয় প্রতিনিধি মো. মমিনুল হকের দৃষ্ঠি আকর্ষণ করলে তিনি বলেন, কাজে ত্রুটি হয়ে থাকলে তা শুধরে নিয়ে পরবর্তীতে শতভাগ মান রেখেই কাজ করা হবে।

উল্লেখ্য যে, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অধীনে সরকার দেশব্যাপি জেলা- উপজেলায় ৫৬০টি ‘মডেল মসজিদ ও ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের উদ্যোগ আ’লীগ সরকার। ৩তলা ভীত বিশিষ্ট আরসিসি ফ্রেমের এ আধুনিক ভবনটি নির্মাণে প্রাথমিক ব্যয় ধরা হয়েছে ১২ কোটি ৩৮ লক্ষ টাকা। নির্মাণ কাজের মেয়াদ ধরা হয়েছে ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাস।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

9 + six =

আরও পড়ুন