মা‌টিরাঙ্গায় আ.লীগ-বিএনপির পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি, ১৪৪ ধারা জারি

fec-image

আওয়ামী লীগ ‍ও বিএনপির পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি কেন্দ্র করে খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা পৌর এলাকায় আগামীকাল সোমবার (২১ নভেম্বর) সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন।

রবিবার (২০ নভেম্বর) রাতে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৃলা দেব স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, দেশব্যাপী বিএনপির সন্ত্রাসের প্রতিবাদে মাটিরাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগ আগামীকাল সোমবার (২১ নভেম্বর) মাটিরাঙ্গা পৌরসভা সংলগ্ন প্রতিবাদ সমাবেশের আহ্বান করে। একই দিন মাটিরাঙ্গা পৌর বিএনপির উদ্যোগে দলীয় কার্যালয়ের সম্মুখে কাউন্সিল ও সমাবেশ আয়োজন করে। এ অবস্থায় জননিরাপত্তা বিঘ্নিত ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি হতে পারে। এজন্য মাটিরাঙ্গা পৌরসভাস্থ, মাটিরাঙ্গা বাজার ও তার আশপাশ এলাকায় সকল প্রকার সভা-সমাবেশ, মিটিং, মিছিল লোক সমাগম এবং চার বা ততোধিক ব্যক্তি একত্রে চলাচল ও আইনশৃঙ্খলা পরিপন্থি সকল অবৈধ কার্যক্রম নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

মাটিরাঙ্গা পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহজালাল কাজল জানান, সোমবার (২১ নভেম্বর) মাটিরাঙ্গা পৌর বিএনপির কাউন্সিল। ইতিমধ্যে কাউন্সিলের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। পৌরসভার পাশে বিশাল মঞ্চ নিমার্ণ করা হয়েছে। সকাল ৯ টায় ভোট গ্রহণ শুরু হবে। দুপুর ২টায় হবে কাউন্সিল। কাউন্সিলে খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য ওয়াদুদ ভূইয়া প্রধান অতিথি হিসেবে থাকার কথা রয়েছে।

অপরদিকে বিএনপির কাউন্সিল স্থলের তিনশ গজ দূরে আওয়ামী লীগ মঞ্চ প্রস্তুত করেছে। বিএনপির নেতা শাহজালাল কাজল বিএনপির কাউন্সিলের ঠিক একদিন আগে আওয়ামী লীগের কর্মসূচি ঘোষণাকে উদ্দেশ্য প্রণোদিত দাবি করে বলেন, ‘পূর্বেও একইভাবে কর্মসূচি ঘোষণা করায় প্রশাসনের অনুরোধে বিএনপির কর্মসূচি পিছানো হয়েছিল।’

মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সুবাস চাকমা বলেন, ‘বিএনপি জামাত জোট কর্তৃক সারাদেশে ষড়যন্ত্র ও নৈরাজ্য সৃষ্টির প্রতিবাদে মাটিরাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগ ও সহেেযাগী সংগঠনের উদ্যোগে বিশেষ কর্মসূচি ঘোষাণা করা হয়েছে। আমাদের কর্মসূচিকে ভণ্ডুল করার লক্ষ্যে পৌর বিএনপি পাল্টা কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। আমরা লক্ষ করছি ইতিমধ্যে কিছু বিএনপির বহিরাগত সন্ত্রাসী মাটিরাঙ্গা আনাগোনা করছে।
বিষয়টি প্রশাসনকে অবহিত করা হয়েছে। মাটিরাঙ্গায় যে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা প্রতিহত করতে আওয়ামী লীগের নেতা কর্মিরা প্রস্তুত রয়েছে।’

বিএনপি সূত্রে জানা যায়, দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ায় গত ১৩ আগস্ট দলীয় কাউন্সিলের ইশতেহার ঘোষণা করা হয়। সে মোতবেক গত ৩০ আগস্ট কাউন্সিল হওয়ার কথা ছিল । ওই দিন আওয়ামী লীগের কর্মসূচি আছে বলে প্রশাসন থেকে কাউন্সিলের অনুমতি না পাওয়ায় অনিবার্য কারণ দেখিয়ে ৭ সেপ্টম্বর কাউন্সিলের তারিখ ধার্য করা হয়। পরবর্তীতে ৭ সেপ্টম্বর পূর্ব নির্ধারিত একই স্থানে আওয়ামী লীগ পাল্টা কর্মসূচি ঘোষণা করলে পুলিশ প্রশাসনের অনুরোধে পুনরায় পৌর বিএনপির কাউন্সিল অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করা হয়। দীর্ঘ প্রায় দেড় মাসেরও বেশি সময় পর কয়েক দিন কাউন্সিলের তারিখ ঘোষণা করা হয়। সে মোতাবেক কাউন্সিলের যাবতীয় কাজ সস্পন্ন করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × three =

আরও পড়ুন