রাঙামাটিতে ভোজ্যতেলের কৃত্রিম সংকট!

fec-image

রাঙামাটির নিত্য প্রয়োজনীয় বাজারে ভোজ্যতেলের কৃত্রিম সংকট দেখা দিয়েছে। বেশি মুনাফার আশায় ব্যবসায়ীরা তেলের মজুদ করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম প্রতি লিটারে ১৯৮ টাকার নির্ধারণ করার হয়। এমন সংবাদ পেয়েই মুনাফালোভী ব্যবসায়ীরা তেলের মজুদ করছেন বলে খবর পাওয়া যায়। শহরের বনরূপা, তবলছড়ি ও রিজার্ভ বাজারে ঘুড়ে এমন অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগ উঠেছে, বোতলজাত সয়াবিন তেল ভেঙে কেজি দরে বিক্রি করছেন অসাধু ব্যবসায়ীরা। এতে লিটার প্রতি মূল্য বৃদ্ধি করা হয়েছে ২০ থেকে ৩৮ টাকা।

স্থানীয় ভোজ্যতেলের দোকানগুলোতে ক্রেতারা ভিড় করছেন বোতলজাত সয়াবিন তেল কেনার জন্য। কিন্তু ডিলাররা তেল সরাবরাহ বন্ধ রাখায় খুচরা দোকানিরা বোতলজাত সয়াবিন তেল সংগ্রহ করতে পারছেনা বলে জানান ব্যবসায়ীরা ।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে তেলের দাম বৃদ্ধির খবর পেয়ে ব্যবসারীরা তেলের দাম বৃদ্ধি করেছে। তারা আপাতত সয়াবিন তেল বিক্রি করা কমিয়ে দিয়ে মজুদ করছে। বেশি মুনাফার আশায় ব্যবসায়ীরা এমন কাজ করছেন বলে জানিয়েছেন ভোক্তারা। এর প্রভাব পড়তে শুরু করেছে নিম্ন আয়ের ক্রেতাদের উপর।

নিম্ন আয়ের ক্রেতারা জানান, দেশের এখন সব কিছুর দাম উর্দ্ধমুখী। নিজেদের দৈনিক আয়ের সাথে দেশের মাত্রারিক্ত দ্রব্যমূলের বৃদ্ধিতে আয় এবং ব্যয়ের সামঞ্জস্য হারাচ্ছে।

রিজার্ভ বাজার এলাকার বাসিন্দা আব্দুল খালেদ জানিয়েছেন, সকালে বাজারে তেল কিনতে গিয়ে অনেক দোকান ঘুরার পর তেল পেয়েছি। ব্যবসায়ীরা জানান, ডিলাররা তেল সরবরাহ করছে না। তাই আমরাও ক্রেতারাদের সেভাবে সেবা দিতে পাচ্ছি না। সরকারের উচিত ডিলারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ কর্তৃপক্ষের রাঙামাটি জেলার দায়িত্বে থাকা সহকারী পরিচালক রানা দেবনাথ জানান, আমরা বিভিন্ন ভাবে অভিযোগগুলো জানতে পেরেছি। তেল মজুদ, ওজনে কম দেওয়া ও অতিরিক্ত দামে সয়াবিন তেল বিক্রির সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ভোজ্যতেল, রাঙামাটি, সংকট
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

8 − seven =

আরও পড়ুন