লামায় প্রবাসির ঘরে তিনজনকে খুন!

fec-image

বান্দরবানের লামা পৌরসভার চাম্পাতলীতে কুয়েত প্রবাসি নুর মোহাম্মদ নামক এক ব্যক্তির দু’কন্যাসহ তিনজনের মরদেহ পড়ে আছে। পুলিশের ভাষ্য, এটি একটি পরিকল্পিত খুন। বৃহস্পতিবার (২০ মে) দিনগত রাত সাড়ে আটটার দিকে খবর পেয়ে লামা থানা পুলিশ লাশ উদ্ধারে গেছে। তবে রাত নয়টায় এই রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত সিআইডি ও পিবিআই না পৌঁছার কারণে লাশগুলো পুলিশ পাহাড়া দিয়ে রেখেছে।

লামা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান, তালাবদ্ধ ঘরে তিনজনের মরদেহ পাওয়া গেছে। এরমধ্যে রয়েছে প্রবাসি নুর মোহাম্মদের স্ত্রী মাজেদা বেগম (৪০) ও তার দুই কন্যা রাফি (১৩) এবং দশ মাসের নূরী। তাদের সবার শরীর ও মুখে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

ওসি বলেন, নিহতের মধ্যে মা মাজেদা বেগম ও তার দশ মাসের শিশু কন্যার লাশ ঘরের মেঝেতে এবং ১৩ বছরের রাফির লাশ খাটের উপর পাওয়া গেছে।

ওসি বলেন, নিহতদের মধ্যে এটি একটি পরিকল্পিত খুন। ঘরের ভেতর আলমিরার তালা ভাঙা। কাপড়-চোপড় সব কিছুই এলোমেলো। দুর্বৃত্ত বাহির থেকে তালা মেরে চলেগেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, আগেরদিন বৃহস্পতিবার মাজেদার অপর শিশু সন্তানকে নিয়ে শ্বাশুড়ি পার্শ্ববর্তি আলীকদম উপজেলায় এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে গেছেন। আজ শুক্রবার সকাল থেকে এই বাড়িতে কারো সাড়া শব্দ পাননি পার্শ্ববর্তিরা। পরে রাত সাড়ে সাতটার দিকে প্রতিবেশিরা ঘরের জানালা দিয়ে দুইটি মরদেহ দেখতে পুলিশে খবর দেয়।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: খুন, লামায়
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × three =

আরও পড়ুন