সরকারি আদেশ বড় নাকি এনজিও’র প্রোগাম?

সরকারি আদেশ অমান্য করে আলীকদমে বিদ্যালয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

fec-image

করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখেছে সরকার। এমনকি পরীক্ষা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হচ্ছে না দেশে! কিন্তু রবিবার (১১ অক্টোবর) বান্দরবান জেলার আলীকদম মৈত্রী উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের উপস্থিত করে মহা সাড়ম্বরে বার্ষিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এর আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠান আয়োজন করে গ্রাউস (গ্রাম উন্নয়ন সংগঠন) একটা এনজিও।

সংগত কারণে প্রশ্ন উঠেছে, সরকারি আদেশ বড় নাকি এনজিও’র প্রোগ্রাম? কেন সরকারি নির্দেশকে পাশ কাটিয়ে মহাসাড়ম্বরে একটি উচ্চ বিদ্যালয়ে বিপুল সংখ্যক ছাত্র-ছাত্রী উপস্থিত করে ‘এনুয়াল কালচারাল প্রোগ্রাম’ করা হলো!

এ কালচারাল প্রোগ্রামে অতিথি ছিলেন আলীকদম উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ কফিল উদ্দিন, ৩নং নয়াপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান ফোগ্য মার্মা-সহ অনেকেই।

জানতে চাইলে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক জসিম উদ্দিন জানান, গ্রাউস ইউএনও’র অনুমতি নিয়ে এ অনুষ্ঠান করেছে। লিখিত অনুমতি আছে কিনা জনতে চাইলে বলেন সেটা গ্রাউস জানবে। আমার কাছে লিখিত অনুমতির কপি নেই।

গ্রাউসের কালচারাল প্রেগাম নিয়ে ৩নং নয়াপাড়া ইউপি চেয়ারম্যানের ফেসবুক পোস্ট

গ্রাউসের মাঠ কর্মকর্তা উথাইপ্রু মার্মা মুঠোফোনে জানান, হাইস্কুলের হেডস্যার ইউএনও থেকে মৌখিক অনুমতি নিয়েছেন!

এ ব্যাপারে রবিবার সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সায়েদ ইকবালের কাছে জানতে চাইলে বলেন, আমি তাদেরকে ঘরোয়া ভাবে ৮/১০ শিক্ষার্থী নিয়ে প্রোগ্রাম করার মৌখিক অনুমতি দিয়েছি। ফরমাল কোন অনুষ্ঠান করার তো অনুমতি দেইনি!

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আলীকদম, করোনা, গ্রাউস
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × 1 =

আরও পড়ুন