সীমান্ত সড়কে চান্দের গাড়ি উল্টে আহত ৫ নির্মাণ শ্রমিক

fec-image

বান্দরবানে থানচি উপজেলা সদর হতে লিটক্রে সীমান্ত সড়কে ১১ কিলোমিটার এর চাঁন্দের গাড়ি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে ঘটনাস্থলে ড্রাইভারসহ ৫ জন সড়ক নির্মাণ শ্রমিক গুরুত্ব আহত হয়েছে।

বুধবার ২৫ মে দিবাগত রাত ৮ ঘটিকার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও স্থানীয়রা উদ্ধার করে আহতদের থানচি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করা হয়। তৎক্ষণিকভাবে কর্তব্যরত চিকিৎসকের নির্দেশে সঙ্কটাপন্ন অবস্থার গুরুতর আহত তিনজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

আহতরা হলেন, বান্দরবান জেলা লামা উপজেলা ডলুছড়ি গ্রামে বাসিন্দা মজিবুল হক ছেলে মো. কাওছার (৪৫), কক্সবাজার জেলা চকরিয়া উপজেলার ঈদগাঁ বাসিন্দা মো. মুরাদ (২৫), চট্টগ্রামে রাঙ্গুনিয়া বাসিন্দা ড্রাইভার মো. জামাল (২৩), একই উপজেলা বাসিন্দা মো. আব্দুর রহিম (২৫), অপর একজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

থানচি থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, থানচি লিটক্রে সীমান্ত সড়কের নির্মাণ কাজ শেষে সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টা ২২ কিলোমিটার তাজিংডং এর সিংত্লাংপি পাড়া থেকে লক্কর ঝক্কর অবস্থার পরিত্যাক্ত চান্দের গাড়ি লট নং-৩০ (বি-৭০) যোগে থানচি উপজেলা ফেরার সময় ১১ কিলোমিটার এর পৌঁছলে পাহাড়ি পথে নামার সময় হঠাৎ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুর্ঘটনা কবলিত হয়। ড্রাইভার ও ৪জন শ্রমিকসহ মোট ৫ জন মধ্যে একজন যাত্রী সামান্য আঘাত লেগে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ী ফিরছেন।

থানচি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. রায়হান বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত ৫ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষ করে তিনজনকে উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজনে বান্দরবান সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। একজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ছেড়ে দেয়া হয়। অপর একজন অন্য স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

থানচি থানা ভাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি সূদ্বীপ রায় জানান, দুর্গম এলাকা সড়ক দুর্ঘটনা হওয়ায় রাত্রে হওয়া খবর পেতে দেরী হয়েছে। কিন্তু খবর পাওয়া সাথে সাথে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ড্রাইভারসহ মোট ৫ জন আহত নির্মাণ শ্রমিকদের উদ্ধার করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

তবে থানচি উপজেলা অভ্যন্তরীণ সড়ক গুলিতে পুরোপুরি নির্মাণ কাজ শেষ হয় নি। তার সাথে উঁচু নিচু পাহাড়ী পথে কিছু লক্কর ঝক্কর চান্দের গাড়ি চলাচল করে। বিআরটিএর কোন রেজিস্ট্রেশন নেই। শুধু লট নম্বর দিয়ে চলে। সেটি সরকারীভাবে পরিত্যাক্ত ছিল। মালিকরা কিছু সংস্কার করে দীর্ঘদিন যাবত রাস্তায় চালিয়ে আসছে। বিআরটিএ অনুমোদনপ্রাপ্ত গাড়ি গুলি চলাচল করলে দুর্ঘটনা কমবে মনে করেন তিনি। তিনি আর ও জানান, গাড়ি জব্দ করে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: সড়ক দূর্ঘটনা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twelve + 17 =

আরও পড়ুন