জুমার নামাজ থেকে তুলে নেওয়া যুবকের লাশ উদ্ধার

বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার:

শুক্রবারে জুমার নামাজ থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া জিয়াউল বশির শাহীন (২২) নামের এক যুবকের ‘গুলিবিদ্ধ লাশ’ মিলেছে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে।

শনিবার (১০ নভেম্বর) সকালে শাহীনের স্বজনেরা খবর পেয়ে হাসপাতালে গিয়ে লাশ শনাক্ত করেন।

নিহত শাহীন টেকনাফের হ্নীলা সিকদারপাড়ার ছৈয়দ হোসেনের ছেলে। পেশায় সে রং কোম্পানীসহ বিভিন্ন ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানের ডিলার বলে জানাগেছে।
শুক্রবার (৯ নভেম্বর) হ্নীলা দারুস সুন্নাহ মাদরাসা সংলগ্ন জামে মসজিদে জুমার নামাজের কাতার থেকে একদল সাদা পোষাক পরিহিত লোক মসজিদে ঢুকে শাহীনকে তুলে নিয়ে গিয়েছিল।

এরপর থেকে অনেক স্থানে সন্ধান চালায় স্বজনেরা। থানা কর্তৃপক্ষও কোন তথ্য দিতে পারেনি।

জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে লাশের সঙ্গে থাকা থানার অপারেশন অফিসার নুরুল ইসলাম জানান, হ্নীলা উলুচামারী রসুল্লাবাদ থেকে শুক্রবার (১০ নভেম্বর) দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে শাহীনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ।

প্রথমে তাকে টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখান থেকে শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে জেলা সদর হাসপাতালে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ‘মৃত’ ঘোষণা করেন। তার লাশ সদর হাসপাতাল মর্গে রয়েছে।

টেকনাফ মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ প্রদীপ কুমার দাস সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বন্দুকযুদ্ধে সে নিহত হয়েছে।

এ ঘটনায় পুলিশের উপর হামলা হয়েছে। ইয়াবা ও অবৈধ অস্ত্রসহ পৃথক মামলা দায়ের করা হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fifteen − 9 =

আরও পড়ুন