মাটিরাঙ্গায় সরব আ’লীগ, মাঠে নেই বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক, মাটিরাঙ্গা:

জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রেশ কাটতে না কাটতেই পাহাড়ি জেলা খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় উপজেলা নির্বাচনের উত্তাপ বইতে শুরু করেছে। সে উত্তাপে গা ভাসিয়ে ভোটের মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীরা।

দলীয় মনোনয়ন নিশ্চিত করতে ক্ষমতাসীন দলের সম্ভাব্য প্রার্থীরা ছুটে চলছেন জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের শীর্ষ নেতৃত্বের দুয়ারে দুয়ারে। তারা রাজনৈতিক ও সামাজিক বিভিন্ন অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার মধ্য দিয়ে নিজেদের প্রার্থীতার কথা জানান দিচ্ছেন। নেতাকর্মী আর সাধারণ ভোটারদের দোয়া-সমর্থন চাইছেন। পাশাপাশি ফেইসবুকে আগাম প্রচার-প্রচারণাও শুরু করেছেন কেউ কেউ।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাঁপ দেখা গেলেও দোটানায় আছে বিএনপিবিএনপি উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেবে কি না তা নিয়ে ধোঁয়াশায় আছেন দলটির নেতাকর্মীরা। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভরাডুবির পর চতুর্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে জয়ের স্বাদ পাওয়া বিএনপির স্থানীয় কোনো শীর্ষ নেতাকে মাঠে দেখা যায়নি।

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগের একাধিক প্রার্থী দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার লড়াইয়ে মাঠে থাকলেও বিএনপির কোনো প্রার্থীর নামই আলোচনায় নেই। তবে বিএনপির একাধিক নেতাকর্মী নিজেদের নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, এ সরকারের অধীনে নির্বাচন নিয়ে স্থানীয়ভাবে তাদের কোনো আগ্রহ নেই।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের একাধিক প্রার্থী ইতিমধ্যেই দলীয় আবেদন ফরম সংগ্রহ করে জমা দিয়েছেন। আলোচিত এসব প্রার্থীরা হলেন, খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক শিল্প ও বানিজ্য বিষয়ক সম্পাদক ও মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক দুই বারের সাধারণ সম্পাদক এম হুমায়ুন মোরশেদ খান, মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও তাইন্দং ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম, মাটিরাঙ্গা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম এবং মাটিরাঙ্গা উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি মো. রাকিবুল হাসান।

অন্যদিকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের আট নেতা মনোনয়ন পেতে আবেদনপত্র সংগ্রহ-সহ জোর লবিং করছেন। এরা হলেন, গোমতি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. মনির হোসেন, মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আলী হোসেন, মাটিরাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর কাউন্সিলর মো. নুরুল ইসলাম, মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক বিমল চন্দ্র ত্রিপুরা, মাটিরাঙ্গা পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আলাউদ্দিন, বড়নাল ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মো. আবুল বশর, তাইন্দং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. লোকমান হোসেন এবং যুবলীগ নেতা মো. আনোয়ার হোসেন ভূঁইয়া প্রমুখ।

অপরদিকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মাটিরাঙ্গা উপজেলা মহিলা লীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি সদস্য হোসনে আরা বেগম, সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান হাসিনা বেগম এবং বেলছড়ি ইউপি সদস্য রোজিনা বেগম দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার জন্য জোর তদবির চালাচ্ছেন।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী এম হুমায়ুন মোরশেদ খান বলেন, তৃণমূলের দাবির প্রতি সম্মান দেখিয়েই আমি দলের মনোনয়ন চেয়েছি। আশা করছি দল আমাকে মনোনয়ন দিয়ে মুল্যায়িত করবে। দল আমাকে মনোনয়ন দিলে আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘বিজয়’ উপহার দিতে সক্ষম হব। অপর প্রার্থী মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আমি তৃণমূলে কাজ করেছি। তৃণমূল নেতাকর্মীরা আমার সাথে রয়েছে। দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারেও শতভাগ আশাবাদী বলে জানান এ নেতা।

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি অংশ না নিলে শেষ পর্যন্ত আওয়ামী লীগের বাইরে আর কোনো প্রার্থী থাকার সম্ভাবনা নেই মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের ভোটের মাঠে। সেক্ষেত্রে চতুর্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে শুধুমাত্র মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে জয় পাওয়া ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এবার চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে জয়ের স্বাদ পাবে এমনটাই মনে করছেন স্থানীয়রা।

ঘটনাপ্রবাহ: উপজেলা নির্বাচন, মাটিরাঙ্গা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × 5 =

আরও পড়ুন