রামগড় খাদ্য গুদাম কর্মকর্তার সাড়ে চার লাখ টাকা চুরির

অপবাদ সইতে না পেরে কর্মচারীর আত্মহত্যার ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

fec-image

খাগড়াছড়ির রামগড় খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান ভূইয়ার সাড়ে চার লাখ টাকা চুরির অপবাদ সইতে না পেরে একই খাদ্য গুদামের মাস্টারোল কর্মচারি উলাপ্রু মারমা সুমন(৩২) বিষপানে আত্মহত্যার ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে। এ কমিটিকে আগামী দুই কার্যদিবসে প্রতিবেদন জমা দিতে নির্দেশ দিয়েছে।

তদন্ত কমিটির প্রধান খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক রূপম চাকমা জানান, চট্টগ্রাম আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক বেসরকারি টেলিভিশন বাংলাভিশনে স্ক্রল দেখে খাগড়াছড়ি জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কানিজ জাহান বিন্দু-কে তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশ দিলে সোমবার এ তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

রূপম চাকমা জানান, তিনি মঙ্গলবার তদন্তে তার অন্য দুই সদস্যকে নিয়ে রামগড় যাচ্ছে। এদিকে সুমনের মৃত্যুকে ধামাচাপা দিতে মহল বিশেষ নানা তৎপরতা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

রামগড় উপজেলা খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান ভূইয়ার অফিস কাম বাসা থেকে সাড়ে চার লাখ টাকা চুরির অভিযোগে অফিসের খন্ডকালীন কর্মচারি উলাপ্রু মারমা সুমনকে দায়ি করে গত ১৬ মে গালমন্দ করা হয়। পরে গুদাম কর্মকর্তা তার স্বজনদের কাছে এ ঘটনার জন্য নালিশ করে বড় ভাই রাজ মারমা সুমনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এক পর্যায়ে তার বড় ভাই তাকে মারধরও করে। এতে সুমন মানসিকভাবে বিপর্যস্ত টাকা চুরির মিথ্যা অপবাদ ও অপমান সহ্য করতে না পেরে রাগে ক্ষোভে সে শনিবার(১৬ মে) সন্ধ্যায় গুদাম এলাকায় বিষপান করে। পরে স্টাফরা গোঁঙানীর শব্দ শুনে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে ভর্তি করায়। খবর পেয়ে রামগড় থানার এসআই আনোয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সুমনের বক্তব্য নেন।

রবিবার (১৭ মে) দুপুরে রামগড় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। এদিকে উলাপ্রু মারমা সুমনের মৃত্যু ঘটনা ধামাচাপা দিতে নানা মহলে তৎপরতা চলছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
উলাপ্রু মারমা সুমনের বড় ভাই রাজু মারমা অভিযোগ করেন, শনিবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে রামগড় উপজেলা চেয়ারম্যান বিশ্ব প্রদীপ ত্রিপুরার মাধ্যমে তার ছোট ভাই সুমন ভারপ্রাপ্ত খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা আসাদুজ্জান ভূইয়ার সাড়ে চার লাখ টাকা চুরি করেছে এমন খবর পেয়ে খাদ্য গুদামে ছুটে যান। এবং ভারপ্রাপ্ত খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা আসাদুজ্জান ভূইয়ার উপস্থিতি ছোট ভাই সুমনকে চর-থাপ্পর দেন। কিন্তু সুমন টাকা চুরির কথা অস্বীকার করে। এক পর্যায়ে সুমন টাকা চুরি করে থাকলে তার বিরুদ্ধে আইন গত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলে চলে আসেন। রাত ৯টায় সুমন বিষ খাওয়া কথা শুনে রামগড় হাসপাতালে যান। চিকিৎসকদের চেষ্টায় রবিবার দুপুর ১২টার দিকে মারা যায়। রাজু মারমা খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা আসাদুজ্জান ভূইয়ার বিরুদ্ধে তার ছোট ভাইকে আত্মহত্যার প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে বিচার দাবি করেন। আগামীকাল মামলা দায়ের করবেন বলেও তিনি জানান ।

রামগড় উপজেলা চেয়ারম্যান বিশ্ব প্রদীপ ত্রিপুরা বলেন, সুমন সাড়ে চার লাখ টাকা চুরি করেছে বলে রামগড় খাদ্য গুদামের কর্মকর্তা আসাদুজ্জান ভূইয়ার তার কাছে ফোন করলে তিনি বিষয়টি তার বড় ভাই রাজু মারমাকে জানান।

অপর দিকে রামগড় খাদ্য গুদামের কর্মকর্তা আসাদুজ্জান ভূইয়া এ সব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তার কোন টাকা চুরি হয়নি এবং কারো কাছে অভিযোগও করেননি।

রামগড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ সামসুজ্জামান জানান, লাশ ময়না তদন্তের জন্য খাগড়াছড়ি হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আপাতত একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। তবে কেউ অভিযোগ করলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eleven + thirteen =

আরও পড়ুন