অসুস্থ শরীর নিয়েও জনগণের জন্য অবিরাম লড়ে যাচ্ছেন এম. গফুর উদ্দিন চৌধুরী

fec-image

হাত-পা ফুলে গেছে, শরীর ব্যথায় কাতর, প্রেসার লো, ডাক্তারের পরামর্শ হলো যথাযথ বিশ্রাম নেওয়া। এমন কঠিন পরিস্থিতিতেও বিরতিহীন জনগণের সেবা করে করে চলেছেন উখিয়ার ০৫ নং পালংখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জনাব এম. গফুর উদ্দিন চৌধুরী। বর্তমানে তিনি অসুস্থ শরীর নিয়ে শুয়ানো অবস্থায়ও জনগণের কাজ করে দিচ্ছেন যার বাস্তব রূপ দেখা গেছে। এছাড়া এলাকাবাসী তাঁর এই মহানুভবতার পরিচয় দেওয়াকে সম্মান ও প্রশংসা করেছেন।

উল্লেখ্য, নির্বাচন কমিশনের নির্দেশ অনুযায়ী ০৫ নং পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদে গত ১৮ আগষ্ট থেকে শুরু হওয়া ভোটার তথ্য ও হালনাগাদ কার্যক্রম নিয়ে ব্যপক ব্যস্ত রয়েছেন অত্র ইউনিয়নের সাধারণ মানুষজন। সেই সুবাদে ব্যস্ত সময় পার করছে ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিরাও। তন্মধ্যে ইউনিয়নের চেয়ারম্যানকে একটু বেশিই ভূমিকা পালন করতে হয় সাধারণত।

জানা যায়, গত ১৮ আগষ্ট থেকে বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করার দিন তারিখ ঠিক হলেও সাধারণ লোকজন গত ১৫ জুলাই থেকে এর পূর্ব প্রস্তুতি নেওয়া শুরু করেছে। এরই প্রেক্ষিতে পূর্ব প্রস্তুতির উল্লেখিত তারিখ থেকেই জনগণকে সেবা প্রদান করে আসছেন অত্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম. গফুর উদ্দিন চৌধুরী। টানা দীর্ঘ এক মাস যাবৎ নতুন ভোটারদের যাবতীয় তথ্য সম্পন্ন কাগজে স্বাক্ষর করে আসছেন তিনি। একটানা স্বাক্ষর করতে করতে তিনি এক পর্যায়ে এসে কয়েকদিন ধরে অসুস্থতায় ভুগছেন। মাঝখান দিয়ে অনেকদিন হাতের আঙ্গুলে ট্যাপ মুড়িয়েও স্বাক্ষর করতে দেখা গেছে। এমনকি শরীরের হাত-পা ফুলে যেতেও দেখা গেছে।

গত শুক্রবার রাতে ফ্যামিলি ডাক্তার দীপক তাঁর শরীর দেখার পর জানান, “চেয়ারম্যান সাহেবের প্রেসার লো’তে নেমে এসেছে। ইতিমধ্যে সেলাইনও দেওয়া হয়েছে এবং এটি ক্রমাগত চালিয়ে যেতে হবে আপাতত। শরীর পরিক্ষা করে বুঝা গেছে তিনি নিয়মিত খাবার খায়না, সময়মতো ঘুমায় না। এখন তাঁর উচিৎ যথাযথ বিশ্রাম এবং চাপ কম নেওয়া।”

এম. গফুর উদ্দিন চৌধুরী জানান, “গত শুক্রবার রাত থেকে খুব বেশি অসুস্থ অনুভব করছি। ডাক্তার এসে দেখে গেলো ও সেলাইনও লাগিয়ে দিলো। দীর্ঘক্ষণ কাজ করতে গিয়ে শরীরের এই করুণ অবস্থা। শনিবার সকাল থেকে ব্যথা কিছুটা কমেছে তবে শুয়ে থাকতে হচ্ছে। একের পর এক লোক আসছে স্বাক্ষর নিতে। সেলাইন লাগানো ছিল, তাই আজ (শনিবার) সারাদিন শুয়ে থেকে স্বাক্ষর করেছি।”

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

11 − 4 =

আরও পড়ুন