ইসলামপুরে চিংড়ি ঘের দখলে গুলি বর্ষণ! ধারালো অস্ত্রসহ ভাড়াটে ৩ মহিলা ধৃত

fec-image

কক্সবাজার সদরের ইসলামপুর ও চকরিয়া উপজেলার সীমান্তবর্তী বাঁশকাটা সংলগ্ন এলাকার গোল্ডেন ফার্ম নামের চিংড়ি ঘের দখলে নিতে গুলি বর্ষণ ও হামলার গুরুতর অভিযোগ তুলেছে ঘের কর্তৃপক্ষ। সংবাদ পেয়ে ধাওয়া করে করতে এসে ধারালো অস্ত্রসহ ৩ ভাড়াটে মহিলাকে ধৃত করেছে ঘের কর্তৃপক্ষের লোকজন ও স্থানীয়রা।

মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) বিকাল ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে গোল্ডেন ফার্ম নামের চিংড়ি ঘের নিয়ে বিবদমান দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এর জেরে ইতিপূর্বে খুটাখালী ইউনিয়নের শিয়াপাড়া এলাকার মোক্তার আহমদের ছেলে গিয়াস উদ্দিন ও ইসলামপুর ইউনিয়নের জুমনগর এলাকার ফজল করিমের ছেলে আক্তার কামালসহ অনেকের বিরুদ্ধে মামলা করেছে ঘের কর্তৃপক্ষ। যা এখনো চলমান রয়েছে।

মঙ্গলবার বিকালে প্রকাশ্য দিবালোকে মামলার তোয়াক্কা না করে উক্ত গিয়াস উদ্দিন ও আক্তার কামালের নেতৃত্বে ২০/২৫ জনের ভাড়াটে পুরুষ ও মহিলা অস্ত্রসস্ত্র সজ্জিত হয়ে ঘেরটি দখলে গুলি বর্ষণ করতে করতে ঘেরের দিকে এগুতে থাকে এবং জনমনে আতঙ্ক ছড়িয়ে দেয়। সংবাদ পেয়ে চিংড়ি ঘেরের মালিক পক্ষ ও স্থানীয় লোকজন দ্রুত ঘটনাস্থলে এগিয়ে গেলে অধিকাংশ অস্ত্রধারীরা পালিয়ে যায়।এসময় ধাওয়া করলে ৩ ভাড়াটে মহিলাকে ধারালো দা, চুরি, কুড়াল ও হাতুড়িসহ জনতা জব্দ করে। ধৃতরা হল ইসলামপুর ইউনিয়নের জুমনগর এলাকার হাবিব উল্লাহর মেয়ে এলেমুন্নাহার, মনছুর আলমের স্ত্রী আনোয়ারা বেগম ও খুটাখালী ইউনিয়নের নতুন পাড়ার মৃত মোজাফফর আহমদের স্ত্রী রশিদা বেগম।

ধৃতরা রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত গোল্ডেন ফার্মের মালিক পক্ষের হেফাজতে রয়েছে। তাদেরকে স্থানীয় প্রশাসনের হাতে সোপর্দ করতে আইনানুগ প্রক্রিয়া চালাচ্ছেন বলে জানান ঘের মালিক পক্ষের প্রতিনিধি ও ইসলামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান চৌধুরী। তিনি আরো জানান, ইতোমধ্যে সংঘটিত ঘটনা ঈদগাঁহ তদন্ত কেন্দ্রের নবাগত আইসি পরিদর্শক আবদুল হালিমকে অবগত করা হয়েছে। এদিকে এ ঘটনায় উভয় পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। প্রশাসন তড়িৎ ব্যবস্থা না নিলে রক্তক্ষয়ী সংর্ঘর্ষের আশঙ্কা রয়েছে বলে জানান স্থানীয়রা। ইতিপূর্বেও এ নিয়ে একাধিকবার সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

ঘের মালিক পক্ষের আরো অভিযোগ, প্রতিপক্ষ দখলদার গিয়াস ও আক্তার বাহিনী তাদের ভাড়াটে হিসেবে যাওয়া ধৃত মহিলাদের অপহরণ করা হয়েছে মর্মে সাজানো মিথ্যা অভিযোগ তুলে ঘের মালিক পক্ষকে উল্টো ফাঁসাতে সাজানো মামলা দায়েরের পায়তারা চালাচ্ছে।তাই এতে প্রশাসনকে বিভ্রান্ত না হয়ে সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক আইনানুগ প্রক্রিয়া গ্রহণের দাবি জানান।অভিযোগ উঠা পক্ষের কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কক্সবাজার, গুলি বর্ষণ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × three =

আরও পড়ুন