ঈদগাঁওতে পাওনা টাকা চাওয়ায় যুবককে ছুরিকাঘাত

fec-image

কক্সবাজারের ঈদগাঁও বাস স্ট্যান্ডে  পাওনা টাকা চাওয়ায় বজলুর হুদা ভুট্টো নামের এক যুবককে ছুরিকাঘাত করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সোমবার (১০ আগস্ট)রাত ৮ টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে বাসস্ট্যান্ডস্থ পুরাতন ন্যাশনাল হাসপাতালের পাশে৷ ঘটনায় জড়িত বখাটে যুবক আটক হয়নি।

আহত যুবক জালালাবাদ ইউনিয়নের পালাকাটা বটতলী পাড়া এলাকার আবদুল কাদেরের ছেলে বজলুর হুদা ভুট্টো(২৭) বলে জানা গেছে।

আহত যুবক ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, রবিবার (৯ আগস্ট) ঈদগাঁও জাগির পাড়াস্থ বকসু পাড়া এলাকার মুক্তার আহমদ প্রকাশ সভাপতি মুক্তারের ছেলে আবু তৈয়ব নামের এক যুবক একটি কালো রংয়ের এ্যাফাছি মডেলের বাইক এনে ভুট্টোকে ১০ হাজার টাকা বিনিময়ে বন্ধক দেয়।

সে সময় নগদ ৫ হাজার ও বাকি ৫ হাজার টাকা দিয়ে ভুট্টোর কাছে নিয়ে নেয় বাইকটি। ইত্যবসরে রাত ১ টার দিকে কক্সবাজার শহর থেকে চুরি হওয়া বাইকটির সন্ধান পেয়ে প্রকৃত মালিক আবু তৈয়বকে ধরতে আসে।

সে কৌশলে বাইকটি ভুট্টাকে বন্ধক দিয়েছে বলে জানালে বাইকের মালিক স্থানীয় দুই রাজনৈতিক ব্যক্তি নিয়ে   ভুট্টোর কাছে গিয়ে রাতেই বাইকটি প্রমাণ সাপেক্ষে নিয়ে আসে। এ সময় ভুট্টোর দেওয়া নগদ ৫ হাজার টাকা ফেরত চাইলে ৩ হাজার টাকা ফেরত দেন। বাকি দুই হাজার টাকা সকালে দেওয়ার কথা থাকলেও না দেয়ায় আবু তৈয়বকে রাতে দেখতে পান ভুট্টো।

তখন তার কাছ থেকে পাওনা ২ হাজার টাকা টাকা ফেরত চাইলে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে হাতাহাতির রূপ নিলে আবু তৈয়বের কোমরে থাকা ধারালো  ছুরি দিয়ে কপালে আঘাত করে।

তার শোর চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে পালিয়ে যায়৷ পরে তাকে উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী নিউরন হাসপাতালে নিয়ে যান।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ভুট্টা ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন রয়েছে। বিষয়টি তাৎক্ষণিক ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে অবহিত করলে দায়িত্বপ্রাপ্ত ইনচার্জ মো. আসাদুজ্জামান আহত ব্যক্তিকে আগে চিকিৎসা প্রদানের পরামর্শ দেন। পরে থানায় মামলা করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন বলে আশস্ত করেন।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত আবু তৈয়বের সাথে মুঠোফোনে কয়েকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়। রিসিভ না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ঈদগাঁও, হাসপাতাল
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three + thirteen =

আরও পড়ুন