কক্সবাজারে উদ্ধারকৃত

বেঙ্গল স্লো লরিস লজ্জাবতী বানর ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে হস্তান্তর

fec-image

কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগ কর্তৃক রামু উপজেলার গর্জনিয়া ঘিলাতলি বেলতলি বাজার থেকে বিপন্ন বিরল প্রজাতির বেঙ্গল স্লো লরিস (লজ্জাবতী বানর) উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত বানরটি অবশেষে চকরিয়া উপজেলাস্থ ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাফারি পার্কে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৫মে) বিকালে উত্তর বনবিভাগ কর্মকর্তারা ডুলাহাজারা সাফারি পার্ক কর্তৃপক্ষের কাছে বিরল প্রজাতির এ বন্যপ্রাণী হস্তান্তর করেন।

বনবিভাগ সূত্রে জানাগেছে, সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ঢাকা বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটের পরিচালক জহির আখনের তথ্যের ভিত্তিতে কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. তহিদুল ইসলামের নির্দেশে বনকর্মীরা বাঘখালী রেঞ্জ গিলাতলি বিট এলাকার বেলতলি বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় ‘বেঙ্গল স্লো লরিস’ নামে বিরল প্রজাতির বন্যপ্রাণী উদ্ধার করেন।

এতে অভিযানে ছিলেন, কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের সহকারী বন সংরক্ষক (সদর) মোহাম্মদ সোহেল রানা, বাঘখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা একেএম আতা ইলাহী, বিশেষ টহল দলের অফিসার ইনচার্জ ইমদাদুল হক ও বিশেষ টহল দলের সদস্যবৃন্দ।

বিশেষ টহল দলের অফিসার ইনচার্জ ইমদাদুল হক বলেন, উদ্ধারকৃত বিপন্ন হওয়া বিরল প্রজাতির লাজুক বানর ‘বেঙ্গল স্লো লরিস’টি মঙ্গলবার বিকালে চকরিয়া উপজেলাস্থ ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাফারি পার্ক কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। বিরল প্রজাতির লজ্জাবতী এ বানরটির এখন আবাসস্থল হয়েছে ডুলাহারা সাফারি পার্কে।

কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. তহিদুল ইসলাম বলেন, বেঙ্গল স্লো লরিস (লজ্জাবতী বানর) এর বৈজ্ঞানিক নাম ন্যাক্টিসেবাস বেঙালেনসিস হচ্ছে লরিসিডি পরিবারের একটি বানর প্রজাতি। বর্তমানে এ প্রজাতির লজ্জাবতী বানর দেশে এখন প্রায় বিপন্ন। এই লজ্জাবতি বানর সচরাচর এখন দেখা যায় না।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে সব দিকে চলছে লকডাউন। এ অবস্থায় প্রকৃতি অনেকটা ফিরে পেয়েছে আপন সত্তা। স্থানীয় সচেতন জনগণকে যারা বন্যপ্রাণীটি উদ্ধার কাজে অগ্রণী ভূমিকা রেখেছে তাদের কাছে কৃতজ্ঞতাও জানান এ জেষ্ঠ্য বন কর্মকর্তা।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কক্সবাজারে, ডুলাহাজারা, পার্কে
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × 2 =

আরও পড়ুন