সেলাই মেশিন বিতরণ

করোনাকালে বিধবা ও দুঃস্থদের পাশে দাঁড়ালো দুই বিজিবি

fec-image

করোনাকালে কক্সবাজার টেকনাফে অসহায়ভাবে জীবন-যাপনকারী, বিধবা ও হত-দরিদ্র পরিবারের মাঝে অনুদান হিসেবে সেলাই মেশিন বিতরণ করেছেন ২বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

মঙ্গলবার (২১ জুলাই) দুপুর ১টার দিকে টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়নের উদ্যোগে হোয়াইক্যং আলহাজ্ব আলী-আছিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে অনুদান হিসেবে সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠান শুরু করে।

টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. ফয়সাল হাসান খান (পিএসসি) ১টি করে সেলাই মেশিন তিন দুঃস্থ পরিবারের মাঝে বিতরণ করেন।

উপকৃত পরিবারগুলোর মধ্যে হোয়াইক্যং উত্তরপাড়ার জকির আহমদের স্ত্রী জোসনা আক্তার, ঝিমংখালীর মৃত জাফর আলমের স্ত্রী লায়লা বেগম, লম্বাবিলের মৃত আবু ছিদ্দিকের স্ত্রী রহিমা খাতুন।

এদিকে দুপুর সোয়া ২টায় হ্নীলা ইউপির লেদা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অনুদান বিতরণ উপলক্ষ্যে অপর অনুষ্ঠানে তিনটি সেলাই মেশিন বিতরণ করেন সিও।

এ ছাড়া সেন্টমার্টিনেও এক দুঃস্থ পরিবারের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ করে ২ বিজিবি।

সিও ফয়সল হাসান খান বলেন, ‘অসহায় দুঃস্থ পরিবারের মাঝে এসব সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়। যাতে তারা স্বাভলম্বী হতে পারেন। প্রতিটি দূর্যোগ ও ক্রান্তিকালে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে আসছে বিজিবি। এরই ধারাবাহিকতায় করোনাকলে আয় বিহীন, বিধবা ও দুঃস্থ পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে। এটি অব্যাহত থাকবে বলেও আশাবাদ ব্যাক্ত করেন সিও।

মৃত জাফর আলমের স্ত্রী লায়লা বেগম ও মৃ্ত আবু ছিদ্দিকের স্ত্রী রহিমা খাতুন বলেন, এ দূর্যোগে বিজিবি আমাদের পাশে দাঁড়িয়ে যে উপকার করলেন, তা আজীবন স্মরণ রাখার মতোই।

অভিভাবকহীন সংসারে উপার্জনের অভিভাবক হলো সেলাই মেশিন। বিজিবির অধিনায়কের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তারা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় হোয়াইক্যং আলহাজ্ব আলী আছিয়া উচ্ছ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোস্তফা কামাল চৌধুরী মুসা, আওয়ামী লীগ নেতা আলমগীর চৌধুরী, ইউপি সদস্য মো. শাহ আলম, জান্নাতুল ফেরদৌস সহ ব্যাটালিয়ন এবং বিওপি ক্যাম্পে দায়িত্বরত কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় প্রধান শিক্ষক মসুা বিজিবির প্রশংসনীয় কার্যক্রমে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে ধন্যাবাদ ও আন্তরীক মোবারকবাদ জানান।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস, টেকনাফ, বিজিবি
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

16 + 10 =

আরও পড়ুন