করোনার ছোবলে সংগীতশিল্পী এখন ফুটপাতের বিক্রেতা

fec-image

করোনা মহামারির মধ্যে গণজমায়েত নিষেধ। আর্থিক অবস্থায় টান পড়েছে সকল স্তরের মানুষেরই। এমনকি হাতে কাজ নেই জনপ্রিয় সংগীতশিল্পীদেরও। তাই জেলায় জেলায় মঞ্চ কাঁপানো জনপ্রিয় এক তরুণী সংগীতশিল্পী এখন পেটের দায়ে ফুটপাতে দোকান খুলে বিক্রি করছেন দুধ, পাউরুটি, বিস্কুট ইত্যাদি।

লকডাউনে হাতে কাজ নেই, আয় বন্ধ। কিন্তু নিত্যদিনের খরচ তো বন্ধ নেই। তাই সংসার চালাতে ফুটপাতে দুধ, পাউরুটি, বিস্কুটের দোকান দিয়েছেন কলকাতার তরুণী সংগীতশিল্পী। প্রতিদিন সকালে হাতিবাগান হরি ঘোষ স্ট্রিটে ট্রাম লাইনের পাশের ফুটপাতে বসে সেই সংগীত শিল্পীর দোকান।

বছর চব্বিশের তরুণী নিলিশা বসাক। স্নাতক পাশ করে সংগীতকেই পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন। কলকাতার পাশাপাশি শহরতলীর বিভিন্ন অনুষ্ঠানে মঞ্চ মাতানোর জন্য ডাক পড়ত তার। বাদ ছিল না জেলার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানগুলিও।

শীতকাল এলেই বিভিন্ন জায়গায় প্রোগ্রাম লেগেই থাকে তার। তবে লকডাউনে সংক্রমণ এড়াতে জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। সুতরাং বন্ধ সমস্ত অনুষ্ঠান। তাই নিলিশারও কোনো রোজগার নেই। সংসারের অর্থাভাব মেটাতে তাই সকাল ৬টা থেকে শুরু হয় তার সংগ্রাম।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম থেকে জানা যায়, রোজ সকালে কলকাতার হরি ঘোষ স্ট্রিটের ফুটপাতে নিলিশা পসার সাজিয়ে বসেন দুধ, পাউরুটি, কুকিজ, বিস্কুট নিয়ে। নিজের ব্যাংকের সঞ্চিত টাকা ভাঙিয়েই নিলিশা এই দোকান দিয়েছেন। সাহায্য পেয়েছেন দুই দাদার কাছ থেকেও। যতদিন না পরিস্থিতি স্বাভাবিক হচ্ছে, ততদিন গায়িকা নিলিশার এই সংগ্রাম চলতে থাকবে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস, ফুটপাত, লকডাউন
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 − 4 =

আরও পড়ুন