করোনা: কোয়ারেন্টিন থেকেই অস্ট্রিয়ার রেসলিং তারকার ইসলাম গ্রহণ

fec-image

করোনাভাইরাস যেমন বদলে দিয়েছে পুরো পৃথিবীকে, তেমনি পরিবর্তন এনেছে মানুষের বিশ্বাস আর মনোবলে। সেই বিশ্বাসের জায়গা থেকে শান্তির নীড় ইসলামের সু-শীতল ছায়াতলে প্রবেশ করলেন জাতিতে জার্মান রেসলিং তারকা অস্ট্রিয়ান উইলহেম অট।

১৬ এপ্রিল নিজের ইসলাম গ্রহণের কথা প্রকাশ্যে ঘোষণা দেন উইলহেম অট। তিনি জানিয়ে দিলেন কোভিড-১৯ এর কোয়ারেন্টাইনে তার শান্তির ধর্ম ইসলাম গ্রহণের কথা। আগের নাম পরিবর্তন করে রেখেছেন ইসলামকি নতুন নামও। এখন থেকে তাঁর নাম উইলহেম অট এর পরিবর্তে খালিদ অট।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে যখন পুরো বিশ্ব আজ কারাগারে রুপান্তর। ঠিক সেই সময় কোয়ারেন্টাইনে বসে চিন্তার জগতে হারিয়ে যান করোনাভাইরাসের মত ক্ষুদ্রাকার একটা ভাইরাস নিয়ে। এত ছোট একটা ভাইরাসের কাছে বিশ্বের সকল আবিষ্কার আজ বন্দী। পৃথিবীর সকল শক্তি আজ নিরুপাই হয়ে আছে ছোট্ট এই চোখে না দেখা ভাইরাসের কাছে। হার মেনেছে পারমানবিক বোমা কিংবা বড় বড় যুদ্ধ জাহাজ। এসব চিন্তা থেকেই পরিবর্তন এসেছিলো জার্মানের এই তারকার।

খুলে যায় তাঁর চিন্তার জগত। খুঁজতে থাকেন মহা পরাক্রমশালী আল্লাহ রাব্বুল আল আমিনকে। অবশেষে সেই মহান আল্লাহ দেখান তাকে সহজ সরল জান্নাতের পথ ইসলাম। জার্মানের রেসলিং তারকা পৃথিবীর এই পরিবর্তনের সাথে নিজেকে পরিবর্তন করে হয়ে যান উইলহেম অট থেকে খালিদ অট।

কোয়ারেন্টাইনে তাঁর এই পরিবর্তন না। কোয়ারেন্টাইন কেবল তার বিশ্বাসকে করেছে পাকাপোক্ত আর মনোবলকে করেছে স্রষ্টার প্রতি আরো বিশ্বাসী। ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করা এক বার্তায় উইলহেম জানান, ইসলাম তার মানসিকতায় গেঁথে ছিল গত কয়েকটি বছর ধরেই। কিন্তু সময়ই বের করতে পারছিলেন না এ নিয়ে স্টাডি করার, জানা-শোনা করার। অবশেষে কোয়ারেন্টাইনে থেকে নিরবচ্ছিন্ন অবসর খুঁজে পেয়েছেন। সেখানেই তিনি খুঁজে পেলেন ইসলামের সৌন্দর্য।

উইলহেম অট বলেন, ‘আমি নিজেকে রাজনৈতিক মনোভাবাপন্ন হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। তবে, যখন আমি খুব কঠিন সময় অতিবাহিত করি, তখন ইসলাম আমাকে শক্তি যোগায়।’

অন্য এক পোস্টে উইলহেম অট তার সমর্থকদের কাছ থেকে ইতিবাচক সাড়া পাওয়ার কারণে তাদেরকে ধন্যবাদ জানান। একই সঙ্গে ইসলামিক সমাজে তাকে উষ্ণতার সঙ্গে গ্রহণ করে নেয়ার কারণেও ধন্যবাদ জানান তার মুসলিম ভাইদের।’

তিনি বলেন, ‘আমি নিজেকে বড় করে উপস্থাপনের জন্য বিষয়টা জানাচ্ছি না। বিষয়টা পোস্ট করছি কেবল, আমার চারপাশে যারা রয়েছেন এবং আমার বন্ধুদের বিষটা জানানোর জন্য।’

১৯৮২ সালে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। মার্শাল আর্টের ওয়ার্ল্ড র‌্যাংকিংয়ে ৬১৫ জনের মধ্যে তিনি রয়েছেন ৭৪ নম্বরে। ২০০৮ সালে পেশাদার মার্শাল আর্ট শুরু করেন উইলহেম। এরপর এখনও পর্যন্ত ৩৩ ম্যাচ খেলে ১৬টিতে জয়লাভ করেন। মিক্সড মার্শাল আর্টে মুসলিমদের সঙ্গে মেলামেশার কারণেই ইসলামের প্রতি অনুরক্ত হয়ে পড়েছিলেন উইলহেম অট।

শুধু উইলহেম অটই নন, সম্প্রতি ইসলাম গ্রহণ করেন চরম মুসলিম বিদ্বেষী হিসেবে পরিচিত এক জার্মান রাজনীতিবিদ। আর্থার ওয়েগনার নামে এই রাজনীতিবিদ জার্মানিতে মুসলিম বিদ্বেষী এবং কঠোর ডান-পন্থি হিসেবে পরিচিত রাজনৈতিক দল অল্টারনেটিভ ফার ডয়েচল্যান্ডের (এএফডি) নেতৃত্বস্থানীয় সদস্য ছিলেন। কিন্তু গত জানুয়ারিতে তিনি হঠাৎ ইসলাম গ্রহণ করে দলের নেতৃত্ব ছেড়ে দেন।

বার্লিণভিত্তিক একটি দৈনিকে তিনি সরাসরি জানিয়ে দেন, ‘এটা আমার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত।’ তার রাজনৈতিক দল অল্টারনেটিভ ফার ডয়েচল্যান্ডের মুখাপাত্র জানিয়ে দেয়, এ বিষয়ে তারা মোটেও প্রস্তুত ছিল না। তাদের এমন একজন নেতা যে ইসলামের প্রতি অনুরক্ত হয়ে পড়ছেন, সেটা তারা টেরই পায়নি। তবে, এ ঘটনায় দলের কোনো ক্ষতি হবে না বলেও জানায় তারা।

তবে জার্মান পত্রিকাগুলো বলছে, জার্মানিতে দলে দলে আসা মুসলিম শরনার্থীরাই তার মধ্যে পরিবর্তন ঘটিয়েছে। সেখান থেকেই ধীরে ধীরে নিজেকে পরিবর্তন করে ফেলেন আর্থার ওয়েগনার।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ইসলাম, করোনাভাইরাস, জার্মান
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

9 − five =

আরও পড়ুন