কাপ্তাইয়ে স্বাস্থ্য সহকারীরা ২য় দিনের মতো দাবি আদায়ে কর্মবিরতি পালন করছে

fec-image

নিয়োগবিধি সংশোধন, বেতন আপগ্রেডেশন ও টেকনিক্যাল পদমর্যাদা দাবিতে ২য় দিনের মতো কাপ্তাই উপজেলা হেলথ্‌ এসিস্ট্যান্ট এসোসিয়েশন শনিবার (২৮ নভেম্বর) কাপ্তাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্স-এ অবস্থান কর্মবিরতি পালন করছে। দাবি বাস্তবায়ন করা না হলে কর্মস্থলে ফিরে না যাওয়ার ঘোষণা দেন তারা।

সারা দেশের স্বাস্থ্য পরিদর্শক, সহকারী স্বাস্থ্য পরির্দশক ও স্বাস্থ্য সহকারীরা জানান, নিয়োগবিধি সংশোধন করে বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে এ কর্মবিরতি পালন করা হয়। এদিকে কাপ্তাই উপজেলায় কর্মবিরতিকালে রাঙ্গামাটি জেলা বাংলাদেশ হেলথ্‌ এসিসট্যান্ট এসোসিয়েশন সাধারণ সম্পাদক ও স্বাস্থ্য পরিদর্শক পূর্ণ বিকাশ চাকমা ও কাপ্তাই উপজেলা সভাপতি অমলেন্দু চাকমা বলেন, তাদের দাবি হলো নিয়োগবিধি সংশোধনসহ ক্রমানুসারে স্বাস্থ্য পরিদর্শক, সহকারী স্বাস্থ্য পরির্দশক ও স্বাস্থ্য সহকারীদের বেতন গ্রেড ১৬তম থেকে যথাক্রমে ১১, ১২ ও ১৩তম গ্রেডে উন্নীতকরণ।

কাপ্তাই উপজেলা বাংলাদেশ হেলথ্‌ এসিসট্যান্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সনজিত কুমার তনচংঙ্গ্যা বলেন, আমরা বহু কষ্ট করে দূর্গম পাহাড়ে গিয়ে বসন্ত, ম্যালেরিয়া, শিশুদের যক্ষা, পোলিও, ধনুষ্ঠংকার, হুপিংকাশি, ডিপথেরিয়া, হেপাটাইটিস-বি, হিমোফাইলস ইনফুয়েঞ্জা, নিউমোনিয়া ও হাম-রম্নবেলাসহ ১০টি মারত্নাক সংক্রামিত রোগের কাজ করে আসছি।

তারা আরো বলেন, প্রজাতন্ত্রের পদোন্নতি বিধি অনুযাযী একজন সরকারি কর্মকর্তা বা কর্মচারী ৩ থেকে ৭ বছর পরপর পদোন্নতি পান। কিন্তু একজন স্বাস্থ্য সহকারী ২০/২৫ বছর যাবৎ পদোন্নতি পেয়ে সহকারী স্বাস্থ্য পরির্দশক হতে পারেনা। এছাড়া তাদের বদলি করা হয় অন্য জেলা থেকে উপজেলায়।

এ সময় স্বাস্থ্য আন্দোলনকারী ও কর্মবিরতি পালন কর্মীরা বলেন, বিদেশ ফেরতদের বাড়িতে, বাড়িতে গিয়ে হোম কোয়ারান্টাইনে থাকার নির্দেশ ও ফলোআপ করতে গিয়ে স্বাস্থ্য কর্মীরা ঝুঁকি নিয়ে ৮শতাধিক সহকারী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে বলে উল্লেখ করেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: করোনা, স্বাস্থ্য সহকারী
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

10 + three =

আরও পড়ুন