কোরআনিক সায়েন্স নিয়ে গোল্ড মেডেল পেলেন গর্জনিয়ার আল্লামা হারুন আজিজী

fec-image

আন্তর্জাতিক ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম এর ৫ম সমাবর্তনে কুরআনিক সায়েন্স এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ থেকে কৃতিত্বের সহিত উত্তীর্ণ হওয়ায় আল্লামা হারুন আজিজী নদভী গোল্ড মেডেল পেয়েছেন।

রবিবার ( ১১ সেপ্টেম্বর) আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম কতৃক আয়োজিত ৫ম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে কুরআনিক সায়েন্স এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ থেকে কৃতিত্বের সহিত উত্তীর্ণ হওয়ায় তিনি এ গোল্ড মেডেল প্রাপ্ত হন।

মাওলানা হারুন আজিজী নদভী বর্তমানে চট্টগ্রাম জামিয়া ইসলামিয়া বাবুনগর মাদ্রাসায় হাদিস বিভাগের প্রধান মুহাদ্দিস হিসেবে নিয়োজিত আছেন। তিনি কুরআনিক সায়েন্স এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ থেকে অনার্স ও মাস্টার্স সম্পন্ন করেছেন।

মাওলানা হারুন আজিজী নদভী ১৯৭১ ইং ১লা ফেব্রুয়ারি বিশ্বের দীর্ঘতম পর্যটন নগরী কক্সবাজার জেলার রামু উপজেলার অন্তর্গত গর্জনিয়া ইউনিয়নের বড়বিল গ্রামে এক সভ্রান্ত ও দ্বীনি পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। তাঁর পিতা মরহুম মাওলানা নজির আহমদ ইবনে বদিউদ্দীন ইবনে মনু ফকির রামুভী রহ।

রোববার (১১ সেপ্টেম্বর) আন্তর্জাতিক ইসলামি ইউনিভার্সিটি চট্টগ্রামের (আইআইইউসি) ৫ম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়েছে। চট্টগ্রামের কুমিরায় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত সমাবর্তনে সভাপতিত্ব করেন চ্যান্সেলর মনোনীত প্রতিনিধি শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী।

সমাবর্তনে মোট ১৫ হাজার ৩৬১ জনকে সনদ বিতরণ করা হয়। এদের মধ্যে স্নাতক পর্যায়ে ৯ হাজার ৪৫৯, স্নাতকোত্তর পর্যায়ে ৫ হাজার ৯০২ জনকে সনদ দেয়া হয়।সমাবর্তন বক্তৃতা প্রদান করেন ইমেরিটাস অধ্যাপক ও ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ড. আইনুন নিশাত। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইআইইউসি বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দীন নদভী এমপি ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সদস্য বিশ্বজিৎ চন্দ।

সমাবর্তনে সম্মানিত অতিথি ছিলেন আইআইইউসি উপাচার্য প্রফেসর আনোয়ারুল আজিম আরিফ, উপ উপাচার্য প্রফেসর ড. মছরুরুল মওলা, ট্রেজারার প্রফেসর ড. মুহাম্মদ হুমায়ুন কবির, শরীয়াহ ও ইসলামিক স্টাডিজ অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. শাকের আলম শওক, বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. আকতার সাঈদ।

সমাবর্তনে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ম চ্যান্সেলর স্বর্ণ পদক দেওয়া হয় ৩৬ শিক্ষার্থীকে। এছাড়া ভাইস চ্যান্সেলর পদক দেয়া হয় ১৩৭ জন শিক্ষার্থীকে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

6 + one =

আরও পড়ুন