চাঁদা না দেওয়ায় সন্ত্রাসীদের হামলায় ১০ নির্মাণ শ্রমিক আহত, নিখোঁজ-২

fec-image

কাপ্তাই চন্দ্রঘোনাস্থ হাফছড়ি এলাকায় ব্রীজ নির্মাণ কাজের চাঁদা না দেওয়ায় আবারও সন্ত্রাসীদের হামলায় ১০ নির্মাণ শ্রমিক আহত, ২জন নিখোঁজ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এলাকায় এ নিয়ে আবারও আতঙ্ক বিরাজ করছে।

শুক্রবার(১৯ জুলাই) বিকাল ৩টায় নির্মাণ শ্রমিকরা কাজ শেষে খাওয়ার সময় একদল উপজাতীয় সন্ত্রাসী  নির্মাণ শ্রমিকদের ওপর অতর্কিত হামলা করে শ্রমিকদের রক্ষিত টাকা-পয়সা ও মোবাইল নিয়ে যায়। এসময় শ্রমিকদের বেদম প্রহার করে। এবং ব্রীজ নির্মাণের চাঁদা না দিলে এ রকম হামলা চলবে বলে শাসিয়ে যায়।

কাপ্তাই এলজিইডির সিএইচটি প্রকল্পের ৪কোটি ৮৭ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ব্রীজসহ আধা কিলোমিটার সড়ক নির্মাণ কাজ করানো হচ্ছে।

সহকারী ঠিকাদার স্বপন জানান, আমার ১৪জন শ্রমিক কাজ শেষ করে খেতে বসছে এসময় সস্ত্রাসীরা ওদের ওপর অতর্কিত হামলা করে। মোবাইলসহ টাকা পয়সা নিয়ে যায়। সস্ত্রাসীদের হামলায় ১০জন শ্রমিক আহত হয়। এদের চন্দ্রঘোনা খ্রিস্টিয়ান হাসপালে বিকালে আহত অবস্থায় ভর্তি করানো হয়েছে। এর মধ্যে শ্রমিক আরফাত(২৫) এবং ফোরকান(২৪) নিখোঁজ রয়েছে।

এদিকে ঠিকাদার মো. ফারুকের সাথে আলাপ কালে বলেন, আমরা গত বছর যাবৎ এ ব্রীজের নির্মাণ কাজ শুরু করি। শুরু থেকে উপজাতীয় জেএসএস নামধারীরা ৫০ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছে। তাদের বার বার বাঁধা ও হামলার ফলে নির্মাণ কাজ করতে বিঘ্ন হচ্ছে। কয়েক দফা আমার নির্মাণ শ্রমিকদের ওপর হামলার পর চন্দ্রঘোনা থানা মামলা এবং লিখিতভাবে প্রশাসনকে পূর্ব থেকে জানিয়ে রেখেছি বলে উল্লেখ করেন। পুনরায় আমার শ্রমিকদের ওপর ঐ সন্ত্রাসীরা চাঁদার দাবি করে অতর্কিত ভাবে হামলা করে। এবং ২জন শ্রমিক নিখোঁজ রয়েছে বলে জানান। আমি এ ব্যাপারে প্রশাসনের নিকট নিরাপত্তা চাই।

এদিকে হামলার কারণে আবারও নির্মাণ কাজ বন্ধ রয়েছে। এদিকে কাপ্তাই জেএসএস সভাপতি বিক্রম মারমার নিকট হামলার ঘটনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার দলের লোকেরা এ ধরনের ঘটনা কখনও ঘটাবে না। জেএসএসের নাম দিয়ে হয়তো মগোর্টি এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে মন্তব্য করেন।  এ ব্যাপারে চন্দ্রঘোনা থানায় কয়েকবার ফোন করেও কাউকে পাওয়া যায়নি।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × 2 =

আরও পড়ুন