আজ পার্বত্য চট্টগ্রামের চাকমা সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী ফুল বিঝু

fec-image

আজ(রবিবার) ফুল বিঝু’ কোনো রকম আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই ফুল বিঝু উৎসব পালন করলো পাহাড়ি সম্প্রদায়ের মানুষেরাা।

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) এর সংক্রমণ রোধে ও সরকারের নির্দেশনা মেনে কোনো রকম আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই যুগ যুগ ধরে চলে আসা ঐতিহ্যবাহী ফুল বিঝু উৎসব পালন করলো পাহাড়ি সম্প্রদায়।

বৈসাবির প্রথম দিন ফুল বিঝু উৎসবের মধ্য শুরু হয় বৈসাবি। মারমা ভাষায় সাংগ্রাইং, ত্রিপুরা ভাষায় বৈসু, তঞ্চঙ্গ্যা ভাষায় বিষু এবং চাকমা ভাষায় বিজু’র সংক্ষেপিত রূপ হচ্ছে বৈসাবি।

প্রতি বছর ফুল ভাসানোর মধ্য দিয়ে পাহাড়ে শুরু হয় এই বৈসাবি উৎসব। আজকের দিনটিকে চাকমারা ফুলবিঝু, মারমারা পাইংছোয়াই, ত্রিপুরারা হারিবৈসুক নামে পালন করে। এই দিনে চাকমাসহ পাহাড়ে বসবাসরত বিভিন্ন সম্প্রদায় এই উৎসবে সামিল হয়ে ভোরে ঘুম থেকে উঠে বিভিন্ন পাড়ায় পাড়ায় ঘুরে ফুল সংগ্রহ করে।

এরপর দলবেধে সবাই একসাথে নদীতে গিয়ে মা গঙ্গার উদ্দেশ্য ফুল ভাসায় পাহাড়িরা। দ্বিতীয় দিন মূল বিঝু ও তৃতীয় দিনে গোইজ্জ্যা-পোইজ্জ্যা দিন নামে পালন করে পাহাড়ের চাকমা সম্প্রদায়। মারমারা প্রথম দিন সাংগ্রাই, এরপরে আকে, এরপরে আতাদা নামে পালন করে।

তিন দিন বিঝু উৎসব হলেও পাহাড়িরা এই উৎসব পালন করে সপ্তাহ জুড়ে। এই সপ্তাহ জুড়ে চাকমা, মারমাত্রিপুরা সম্প্রদায় নানা রকম ঐতিহ্যবাহী অনুষ্ঠান ও খেলাধুলার আয়োজন করে থাকে। ঘিলে খেলা, নাদেং খেলা, পানি খেলাসহ বিভিন্ন খেলাধুলার আয়োজন করে পাহাড়িরা। এই উৎসবের আমেজ পার্বত্য চট্টগ্রামের পাহাড়ি/ বাঙ্গালী সকল সম্প্রদয়ের মানুষের মাঝে ছড়িয়ে পরে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস, চাকমা, পার্বত্য
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × one =

আরও পড়ুন