জনপ্রিয় হচ্ছে কাপ্তাইয়ের ‘রিভার ভিউ পার্ক এন্ড গ্রীনহিল রেস্টুরেন্ট’

fec-image

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে দীর্ঘ ৫ মাসের বেশি সময় পর খুলেছে রাঙামাটির কাপ্তাইয়ের পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্রগুলো। পর্যটন কেন্দ্রগুলো খুলে দেওয়ার পর থেকেই ক্রমান্বয়ে কাপ্তাইের স্পটগুলো পর্যটকের পদচারণায় মুখরিত হচ্ছে। পর্যটন কেন্দ্র চালু হওয়ার পর নতুন করে আরো আকর্ষনীয় হয়ে উঠছে কর্ণফুলী জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র সংলগ্ন রিভার ভিউ পার্ক এন্ড গ্রীন হিল রেস্টুরেন্ট। অপরূপ সৌন্দর্যের লীলাভূমি কাপ্তাইয়ের প্রাকৃতিক মনোরম পরিবেশে অবস্থিত এই পর্যটন স্পটটি ভ্রমনে আসছেন দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পর্যটকেরা। সবচেয়ে আকর্ষনীয় বিষয় হচ্ছে এই পর্যটন কেন্দ্রতে প্রবেশ হতে কোন ফি এর প্রয়োজন হয়না। বিনামূল্যে যে কেউ এই অপরূপ সৌন্দর্যের পর্যটন স্পটটিতে প্রবেশ করতে পারে।

কিন্তু রয়েছে কর্তৃপক্ষের একটি বিশেষ শর্ত এবং সেটি হলো উক্ত পর্যটন স্পটে প্রবেশ করতে হলে অবশ্যই করোনা প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রবেশ করতে হবে এবং সেই সাথে উক্ত পর্যটন কেন্দ্রে প্রবেশ করে কেউ কোন প্রকার ধুমপান বা মাদকদ্রব্য গ্রহণ কিংবা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে পারবে না।

কাপ্তাই রিভার ভিউ পার্ক এবং গ্রীন হিল রেস্টুরেন্টে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, অপরূপ সৌন্দর্যবেষ্টিত বয়ে চলা শীতল জলের কর্ণফুলী নদীর পাশে কাপ্তাই জল বিদ্যুৎ কেন্দ্র সংলগ্ন এই পর্যটন স্পটে প্রবেশ করলে যে কারো মন প্রফুল্ল হয়ে যাবে। অত্যন্ত সুন্দর এবং পরিষ্কার পরিছন্ন প্রাকৃতিক মনোরম পরিবেশে অবস্থিত হয়েছে এই পর্যটন কেন্দ্রটি।

উক্ত পর্যটন কেন্দ্রে রয়েছে পর্যটকদের বসার জন্য বিভিন্ন ছোট ছোট ঘরের ব্যবস্থা। রয়েছে আকর্ষনীয় সৌন্দর্যে পরিপূর্ণ গ্রিন হিল রেস্টুরেন্ট। যেখানে বসে পর্যটকেরা খেতে পারবেন হরেক রকমের দেশীয় ও সুস্বাদু মানের খাবার। উক্ত পর্যটন কেন্দ্রটিতে সবচেয়ে আকর্ষনীয় হচ্ছে মাঝখানে দাঁড়িয়ে লম্বা ওয়াচ টাউয়ার। যেই টাউয়ারে উঠে পর্যটকেরা উপভোগ করতে পারবে কাপ্তাইের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপার মহিমা।

সেইসাথে মাঝে মাঝে দেখা পাওয়া যাবে পাহাড় থেকে আসা বানরসহ বিভিন্ন আকর্ষনীয় পাখির। উক্ত পর্যটন কেন্দ্রে রয়েছে সুবিশাল পিকনিক স্পট। কেউ চাইলে কাপ্তাই রিভার ভিউ পার্ক পর্যটন কেন্দ্রের পরিচালকের সাথে অগ্রিম যোগাযোগ করে পিকনিক স্পটটি ভাড়া নেওয়ার পাশাপাশি উক্ত রেস্টুরেন্টে বিভিন্ন প্রকারের খাবার অগ্রিম অর্ডার দেওয়ার ও সুযোগ রয়েছে।

পর্যটন কেন্দ্রটিতে ঘুরতে আসা পার্শ্ববর্তী রাঙ্গুনিয়া উপজেলার বাসিন্দা মোঃ ওসাকিব, সৌরভ নীলিমা হাসনাত ছানিয়া, আলমগীর টিপুসহ কয়েকজন পর্যটকের সাথে কথা হলে তারা বলেন, অত্যন্ত পরিষ্কার পরিছন্ন, কোলাহল মুক্ত, অপরূপ সৌন্দর্যের প্রাকৃতিক পরিবেশে অবস্থিত এই রিভার ভিউ পার্ক এন্ড গ্রিনহিল রেস্টুরেন্টে আসলে যে কারো মন প্রফুল্ল হয়ে যাবে।

সেই সাথে উক্ত পর্যটন কেন্দ্রে যে ওয়াচ টাউয়ারটি রয়েছে সেটির উপরে উঠলে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি কাপ্তাইয়ের সৌন্দর্যের অপার মহিমা সরাসরি নিজের চোখে উপভোগ করতে পারা যায়।

তারা আরো জানান, উক্ত পর্যটন কেন্দ্রটিতে প্রবেশ পথে লাগেনা কোন ফি যার ফলে যে কেউ এর সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারে তাও বিনামূল্যে। সেই সাথে উক্ত পর্যটন কেন্দ্রটি সম্পূর্ণ মাদকমুক্ত এবং বিশৃংঙ্খলা মুক্ত পরিবেশে তৈরি হওয়ায় কাপ্তাই রিভার ভিউ পার্ক এবং গ্রিন হিল রেস্টুরেন্টের পরিচালকদের পর্যটকেরা ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তবে এখানে ভালো মানের থাকা বা রাত যাপনের ব্যবস্থা থাকলে আরো ভালো হত বলে অনেই মন্তব্য করেন।

কথা হয় কাপ্তাই রিভার ভিউ পার্কের পরিচালক আকিদুর রহমানের সাথে তিনি জানান, সম্পূর্ণ মাদক ও বিশৃঙ্খলা মুক্ত এই পর্যটন স্পটটি বর্তমানে খুব অল্প সময়ে সকলের কাছে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। তিনি আরো বলেন উক্ত পর্যটন স্পটটি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে কেবল পর্যটকদের বিনোদনের জন্য কোন ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে নয়, তাই উক্ত পার্কে প্রবেশ করতে প্রয়োজন হয়না কোন ফি এর। যে কেউ চাইলে বিনামূল্যে এই পার্কে প্রবেশ করতে পারে।

তিনি আরো বলেন, রিভার ভিউ পার্ক এন্ড গ্রিন হিল রেস্টুরেন্টে রয়েছে হারেক রকমের সুস্বাদু খাবারের ব্যবস্থা। রয়েছে কাপ্তাই হ্রদের তাজা মাছ, দেশী মুরগী, বিভিন্ন প্রকারের ভর্তা, ভাজিসহ দেশী, বিদেশী হরেক রকমের খাবারের সমাহার। খুব সুলভ মূল্যে এবং অত্যন্ত পরিষ্কার পরিছন্ন পরিবেশে আগত পর্যটকদের খাবার পরিবেশন করা হয়ে থাকে। সেই সাথে উক্ত রেস্টুরেন্ট বিভিন্ন অনুষ্ঠানে সুস্বাদু এবং মানসম্মত খাবার অর্ডার নেওয়া হয়ে থাকে।

এছাড়াও তিনি বলেন, উক্ত পর্যটন কেন্দ্রে রয়েছে সুবিশাল পিকনিক স্পট যেখানে কোলাহল মুক্ত প্রাকৃতিক পরিবেশে পর্যটকেরা পিকনিকের আয়োজন করতে পারে এবং বিশাল বড় ওয়াচ টাউয়ারে উঠে সম্পূর্ণ কাপ্তাইয়ের অপরূপ সৌন্দর্যকে খুব কাছে থেকে উপভোগ করতে পারবে।

তিনি আরো জানান, বর্তমানে রিভার ভিউ পার্ককে আরো আকর্ষনীয় এবং আধুনিকায়ন করার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে এবং খুব শীঘ্রই উক্ত পর্যটন কেন্দ্রকে আলোকসজ্জাসহ বিভিন্ন ডেকোরেশনের মাধ্যমে আরো আকর্ষনীয় করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: করোনা, কাপ্তাই, কাপ্তাই রিভার ভিউ পার্ক
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 + nine =

আরও পড়ুন