ঝুঁকি নিয়ে সেন্টমার্টিন থেকে ফিরছেন আটকে পড়া পর্যটকরা

fec-image

কক্সবাজারের প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিন ভ্রমনে গিয়ে বৈরী আবহাওয়ার কারণে দুই দিন ধরে আটকা পড়া পর্যটকদের অনেকেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ট্রলারে করে টেকনাফে ফিরছেন। সকালে থেকে একাধিক ট্রলারে করা তারা সেন্টমার্টিন জেটিঘাট থেকে টেকনাফের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন। মাঝ পথে অনেকেই ঝড়ো হাওয়া ও প্রবল বৃষ্টিপাতের কবলে পড়েছেন। তবে এতে কোন পর্যটক দূর্ঘটনার শিকার হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুর আহমদ জানান, বৈরী আবহওয়ার কারনে গত সোমবার থেকে দ্বীপে আটকা পড়েছিলেন শতাধিক পর্যটক। জাহাজ চলাচল না করায় তারা টেকনাফে ফিরতে পারছিলেন না। তবে আজ সকাল থেকে অনেক পযটক ট্রলারে করে টেকনাফের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছেন। বর্তমানে হাতেগোনা কয়েকজন পর্যটক আছেন দ্বীপে। আজ সাগরও শান্ত রয়েছে।

সেন্টমার্টিনের হোটেল কিংশুক এর মালিক মো. সরওয়ার জানান, বেশ কিছু পর্যটক গত দুইদিন ধরে তার হোটেলে ছিলেন। আজ সকালে তারা কক্ষ ছেড়ে দেন। বর্তমানে মাত্র দুইজন পর্যটক রয়েছে তার হোটেলে। সব মিলিয়ে এখন ১০/২০ জন পর্যটক থাকতে পারে সেন্টমার্টিনে।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন, লঘুচাপের প্রভাবে বঙ্গোপসাগর উত্তাল। দুর্ঘটনা এড়াতে সোমবার থেকে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌপথে সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ রাখা হয়েছে। তবে সেন্টমার্টিন দ্বীপে আটকা পড়া পর্যটকদের খোঁজ খবর রাখতে স্থানীয় পুলিশ, বিজিবি, কোস্টগার্ড ও ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যদের বলা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, পর্যটক, প্রবাল দ্বীপ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 + five =

আরও পড়ুন