পাহাড়ে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ

নভেম্বরে বান্দরবানে ৩৫ জন করোনা আক্রান্ত: মোট আক্রান্ত ৮৫৩

fec-image

এ জেলায় মোট নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ৫৫৭৬ জনের, মোট নমুনা রিপোর্ট পাওয়া গেছে ৫৩০৯ জনের, এদের মধ্যে মোট শনাক্ত ৮৫৩, মোট সুস্থ রোগী ৭৫২জন এবং এখনো ভর্তি আছে ২৩২ জন। আর হোম কোয়ারান্টাইনে এই পর্যন্ত ১ হাজার ১ শত ৬ জন ছিলেন, এদের সকলকেই ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারান্টাইনে ১ শত ১১ জন ছিলেন, এদের সবাইকে ও ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। এ জেলায় এখন পর্যন্ত করোনায় মারা গিয়েছে ৪ জন।

পার্বত্য জেলা বান্দরবানে গত কিছু দিন ধরে তীব্র শীতের সাথে বাড়ছে করোনা রোগী। গত কয়েক মাসের মধ্যে সবচেয়ে বেশী করোনা আক্রান্ত হয়েছে গত ২৭ নভেম্বর। ৯ জন রোগী নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন এ দিন। এদের মধ্যে সবাই সদর উপজেলার বাসিন্দা। চলতি নভেম্বর মাসে এ পর্যন্ত বান্দরবান জেলায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৩৫ জন।

এদিকে শীতের মৌসুমে পর্যটন জেলা বান্দরবান ইতোমধ্যেই পর্যটকদের আনাগোনায় ভরে হয়ে উঠেছে। ফলেেউদ্বেগ বাড়ছে জেলাবাসী ও প্রশাসনের।

বান্দরবানের জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ কর্তৃপক্ষ জানায়, এ জেলায় মোট নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ৫৫৭৬ জনের, মোট নমুনা রিপোর্ট পাওয়া গেছে ৫৩০৯ জনের, এদের মধ্যে মোট শনাক্ত ৮৫৩, মোট সুস্থ রোগী ৭৫২জন এবং এখনো ভর্তি আছে ২৩২ জন। আর হোম কোয়ারান্টাইনে এই পর্যন্ত ১ হাজার ১ শত ৬ জন ছিলেন, এদের সকলকেই ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারান্টাইনে ১ শত ১১ জন ছিলেন, এদের সবাইকে ও ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। এ জেলায় এখন পর্যন্ত করোনায় মারা গিয়েছে ৪ জন।

সামনে শীতের তীব্রতা বাড়ার সাথে আক্রান্তের সংখ্যাও বাড়তে পারে জানিয়েছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. অং শৈ প্রু মারমা বলেন, আত্মসচেতনতা বৃদ্ধির কোনো বিকল্প নেই। আমরা সকলেই নিজ নিজ অবস্থান থেকে শতভাগ মাস্ক ও স্যানিটাইজার ব্যবহার নিশ্চিতের পাশাপাশি কোনো প্রকার উপশম দেখা দেওয়ার সাথে জেলা সদর হাসপাতালে করোনা পরীক্ষা করানোর পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছি।

এদিকে করোনা মহামারীতে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য জেলা প্রশাসন কর্তৃক ভ্রাম্যমাণ আদালতে অভিযান পরিচালিত হচ্ছে, এর মধ্যে ২ দিন অভিযান পরিচালিত হয়েছে, ১০ জনকে জরিমানা করা হয়েছে। সচেতনতা বাড়াতে লিফলেট, মাস্ক বিতরণের করা হচ্ছে।

এদিকে পর্যটনের মৌসুম হওয়ায় ইতোমধ্যেই বান্দরবানের পর্যটন স্পটগুলো ইতোমধ্যেই পর্যটকদের আগাগোনায় ভরে উঠেছে। প্রতিদিন কয়েক হাজার পর্যটক এই জেলার পর্যটন স্পটগুলো ভ্রমণ করছেন। ফলে বিষয়টি নিয়ে জেলার সাধারণ মানুষ উদ্বিগ্ন। প্রশাসনও সতর্ক।

পর্যটক ও পর্যটন স্পটগুলোতে করোনা ঝুঁকি কমাতে বিশেষ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে নো মাস্ক, নো এন্ট্রি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এই বিষয়ে বান্দরবান জেলা প্রশাসক দাউদুল ইসলাম বলেন, করোনা সেকেন্ড ওয়েভ মোকাবেলায় পর্যটন স্পট গুলো বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে, মাস্ক এবং সামাজিক দূরত্বের বিষয়ে সতর্ক ও সচেতন করা হচ্ছে, কিছু কিছু ক্ষেত্রে জরিমানা করা হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: করোনা, পর্যটন, বান্দরবান
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 − 8 =

আরও পড়ুন