নাইক্ষ্যংছড়িতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন, কঠোর নিরাপত্তার নিশ্চয়তা

fec-image

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী, ঘুমধুম, সদর ইউনিয়নসহ উপজেলায় অবস্থিত ৩টি শ্রী শ্রী হরি মন্দিরে পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন ও সানতন ধর্মাবলম্বীদের সাথে কুশল বিনিময় করেছেন নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার সালমা ফেরদাউস। এছাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের প্রতিনিধি হিসেবে সার্ভেয়ার অহিদুল্লাহ পারভেজসহ ৩টি দল পুজা মণ্ডপ পরিদর্শন ও সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করছেন।

এরই ধারাবাহিকতায় শনিবার (১ অক্টোবর) বেলা ১২ টায় দক্ষিণ বাইশারী শ্রী শ্রী হরি মন্দির পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন ও সানতন ধর্মাবলম্বীদের সাথে কুশল বিনিময় করেছেন প্রতিনিধি দলের সদস্য সার্ভেয়ার অহিদুল্লাহ পারভেজ।

বাইশারীতে অবস্থিত শ্রী শ্রী হরি মন্দিরের সভাপতি সাধন চন্দ্র ধর বলেন, এবারে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে শ্রী শ্রী শারদীয়া দুর্গা উৎসব পালন করা হবে।নিরাপত্তার জন্য পুলিশ ও আনসার সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছেন বলেও তিনি জানান।

এসময় দক্ষিণ বাইশারী শ্রী শ্রী হরি মন্দিরের সভাপতি সাধন চন্দ্র ধর, সাধারণ সম্পাদক সুমন চৌধুরী বটন, অর্থ সম্পাদক জন্টু ধর ,নাইক্ষ্যংছড়ি প্রেসক্লাবের সভাপতি আবদুল হামিদসহ আনসার ও পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

গত ২৭ সেপ্টম্বর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সালমা ফেরদাউস বাইশারী ইউনিয়ন এর দক্ষিণ বাইশারীতে অবস্থিত শ্রী শ্রী হরি মন্দির ও পূজা মণ্ডপ পরিদর্শনকালে বলেন, বর্তমান সরকার জনবান্ধব সরকার, তাই সম্প্রীতি, সৌহার্দ বজায় রেখে শান্তিপূর্ণভাবে একে অপরে ধর্ম পালন করতে সকল প্রকার নিরাপত্তা দিয়েছেন। তিনি আরো বলেন, সনাতন ধর্মাম্বলীদের সংখ্যালঘু না ভেবে দেশের একজন নাগরিক হিসেবে নির্ভয়ে তাদের দুর্গোৎসব পালনের আহবান জানান। সেই সঙ্গে তিনি সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পূজার সকল আনুষ্ঠানিকতা পরিচালনা করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে ধন্যবাদ এবং সনাতন ধর্মের সকলকে শারদীয়া দুর্গা পূজার শুভেচ্ছা জানান। পাশাপাশি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত সকলকে যথাযথ দ্বায়িত্ব পালন করার জন্য আহবান জানান।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার সালমা ফেরদৌস সাংবাদিকদের বলেন, সানতন ধর্মাবলম্বীদের বড় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজা। নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় মোট ৩টি মণ্ডপে পূজা উৎসব পালন করা হবে। সীমান্ত ইউনিয়ন ঘুমধুম, নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ও বাইশারীতে শারদীয় দুর্গা উৎসব নির্বিঘ্নে পালন করতে পারবেন। নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবে আনসার ও পুলিশের পাশাপাশি বিজিবির টহল দল। এছাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর প্রতিনিধি হিসেবে ৩টি দল পূজা মণ্ডপের সার্বক্ষণিক খবরাখবর নিবেন।

বাইশারী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক আবুল হাসেম জানান, পূজা মণ্ডপে সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালনের জন্য পুলিশ সদস্যরা মোতায়েন রয়েছে। যে কোন ধরনের অপ্রিতীকর ঘটনা এড়াতে পুলিশ সদস্যরা প্রস্তুত রয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: নাইক্ষ্যংছড়ি, নিরাপত্তা, পূজা মণ্ডপ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × two =

আরও পড়ুন