বাইশারীতে মুজিব জন্মশতবার্ষিকীতে যুবলীগ পতাকা উত্তোলন না করায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া

fec-image

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারীতে বঙ্গবন্ধু জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত দলীয় অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ ও সহযোগি সংগঠন নিজ নিজ সংগঠনের পতাকা উত্তোলন করলেও ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি আবুল কালাম বীর দর্পে অনুষ্ঠানের সম্মুখ দিয়ে ঘুরে বেড়ালেও পতাকা উত্তোলন করেননি।

উক্ত কারণে যুবলীগের অন্যান্য সদস্যরা ও পতাকা উত্তোলন করতে না পেরে তাৎক্ষণিক ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। এছাড়া মুজিববর্ষের দিন বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিে পুস্প স্তবক অর্পণ ও করেননি তিনি। দোয়া মাহফিলেও অংশ গ্রহণ করেননি।

অভিযোগ উঠছে নিজ সংগঠনের পক্ষ থেকে একাধিক নেতা কর্মীদের সাথে সব সময় দুর্ব্যবহারসহ গত ৭ মার্চ ঐতিহাসিক দিবসে ও নিজ সংগঠনের পতাকা উত্তোলন থেকে বিরত ছিল।

বিষয়টি নিয়ে মুঠোফোনে যুবলীগ সভাপতির নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, আওয়ামী লীগ সভাপতি মুজিব জন্মশতবার্ষিকী নিয়ে আমাকে কিছুই জানাই নি। তাই আমি ইচ্ছে করেই পতাকা উত্তোলন করতে যায়নি।

আওয়ামী লীগ সভাপতি জাহাংগীর আলম বাহাদুর বলেন, মুজিববর্ষ নিয়ে যেখানে সারাদেশব্যপী প্রচারণা চলছে। তারপর ও যদি সে অবগত না হয় তাহলে আমার দুঃখ প্রকাশ করা ছাড়া আর কি বলার আছে।

তাছাড়া যুবলীগ সভাপতি কালাম ৭ মার্চ ঐতিহাসিক দিবসের কথা আগাম জানানোর পরে ও পতাকা উত্তোলন করেনি।

স্থানীয় একাধিক আওয়ামী লীগ নেতা ও স্বয়ং যুবলীগ নেতাদের অভিযোগ বর্তমানে যুবলীগ সভাপতি আবুল কালাম বিভিন্ন রাস্তার কাজের তদারকির দায়িত্ব নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছে। তিনি বর্তমানে দায়িত্বে রয়েছেন ইদগড়-কাগজীখোলা সড়কের সাড়ে ৭কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত সড়কের । যাতে করে নিম্ন মানের কাজ করলে ও কেহ মুখ খুলে কথা বলার সাহস না পায়।

কার্পেটিং দ্বারা উন্নয়ন কাজে ব্যবহার করছে বালির পরিবর্তে পাহাড়ের মাটি। এর প্রতিবাদ করতে গিয়ে আওয়ামী লীগ ওয়ার্ড সভাপতি সরোয়ার আলম মিন্টু তার হাতে মারধরের স্বীকার ও নাজেহাল হয়। তাছাড়া এসব নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক ব্যক্তি মন্তব্য করায় তাকে ও অকথ্য ভাষায় গাল মন্দ করে। ভয়ে অনেকেই মুখ খুলছেনা।

তার ক্ষমতার অপব্যবহার এ লোকজন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল এ যুবলীগ এর পতাকা উত্তোলন না করা সংক্রান্ত সংবাদ প্রকাশ হলে যুবলীগ নেতা কালাম উল্টো গালমন্দ করে বলে। যুবলীগ করা না করা পতাকা তোলা না তোলা আমার ব্যাপার। এটা আমার চাকুরী নয়।

সকল অপকর্মের বিষয়ে স্থানীয় লোকজন ও আওয়ামী লীগ নেতারা সুষ্ঠু তদন্তের দাবী জানান।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আওয়ামী লীগ, বান্দরবান, মুজিববর্ষ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

11 − five =

আরও পড়ুন