বান্দরবানে জেএসএসের ৫ জনকে হত্যার দাবি কেএনএফের

fec-image

বান্দরবানে নবগঠিত কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট (কেএনএফ)-এর সশস্ত্র হামলায় জেএসএস সন্তু গ্রুপের পাঁচ সন্ত্রাসী নিহত হওয়ার দাবি করা হয়েছে সংগঠনটির পক্ষ থেকে। কেএনএফের তথ্য, প্রকাশনা ও ইন্টেলিজেন্ট ব্রাঞ্চের পক্ষ থেকে লে. কর্নেল সলোমন বুধবার (৭  সেপ্টেম্বর) রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠনটির পক্ষ থেকে আরো বলা হয়েছে, রুমা উপজেলার পাইন্দু ইউনিয়নের আলেচু পাড়া এবং তংমক পাড়ার মাঝখানে অবস্থিত এলাকায় একটি ক্যাম্পে জেএসএস (সন্তু লারমা) এর সশস্ত্র গ্রুপের ৫ সদস্য অস্থান করছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার ভোরে কেএনএফ এর হেড-হান্টার টিমের সদস্যরা তাদের উপর শসস্ত্র অভিযান পরিচালনা করে। এই অভিযানে কেএনএফ এর কমান্ডোরা জেএসএস এর পাঁচ সদস্যকে হত্যা করে এবং বিপুল পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্র, গোলাবারুদ ও বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করে।

এসময় কেএনএফ কমান্ডোরা তাদের ক্যাম্প ধ্বংস করে দেয়। উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে বুলেট ১০০টি, গাদাবন্দুক ৩ টি, কার্তুজ (দেশী) ২ টি, মোবাইল ৪ টি, ওয়াকিটকি ৪ টি, ধারালো ছুরি ৫টি, পাওয়ার ব্যাঙ্ক ১০ টি, রেকস্যাক ৫ টি, সামরিক পোশাক ৫ টি।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরো উল্লেখ করা হয়, জেএসএস সন্ত্রাসীরা দীর্ঘদিন ধরে ওই এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের মাধ্যমে নিরীহ জনগণকে (তথা বাঙ্গালি, মারমা, খিয়াং ও তঞ্চঙ্গ্যা জনগোষ্ঠীকে) জিম্মি করে হত্যা, চাঁদা আদায়, অপহরণসহ বিভিন্ন ভাবে নির্যাতন চালিয়ে আসছিল।

এব্যপারে বান্দরবানের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অশোক কুমার পাল জানান, রুমা উপজেলার পাইন্দু এলাকায় সন্ত্রাসী গোষ্ঠি দুগ্রুপের মধ্যে গোলাগুলির খবর স্থানীয়দের মারফত পেয়েছি। ঘটনাস্থল অতি দুর্গম হওয়ার কারণে পুলিশ পৌঁছতে সময় লাগছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে আসল ঘটনা জানা যাবে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × 4 =

আরও পড়ুন