মিয়ানমারে সশস্ত্র জান্তাবিরোধীরা একজোট হচ্ছে

fec-image

মিয়ানমারে জান্তাবিরোধী সশস্ত্র জোট গঠনের প্রক্রিয়া এগিয়ে চলেছে। এরই মধ্যে রাখাইন রাজ্যের সশস্ত্র বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান আর্মি (এএ) এবং ওয়া রাজ্যের ইউনাইটেড ওয়া স্টেট আর্মির (ইউডব্লিউএসএ) শীর্ষ নেতারা সাক্ষাৎ করেছেন। দেশটির শান রাজ্যের মোংলা নামক অঞ্চলে তাঁরা সাক্ষাৎ করেন।

মিয়ানমারের সংবাদমাধ্যম ইরাবতী নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আরাকান আর্মির ডেপুটি কমান্ডার ইন চিফ ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নায়ো তুন অং এবং ইউনাইটেড ওয়া স্টেট আর্মির ডেপুটি লিডার বাও আই শান পরস্পরের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। জেনারেল নায়ো তুন অংয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে কাচিন ইনডিপেনডেন্ট আর্মির হেডকোয়ার্টার লিয়াজা থেকে মোংলায় আসেন।

ইউনাইটেড ওয়া স্টেট আর্মির মুখপাত্র দ্য ওয়া মিডিয়া জানিয়েছে, এ দুই নেতার সাক্ষাতের উদ্দেশ্য হলো—দুই বাহিনীর নেতাদের মধ্যে ব্যক্তিগত পর্যায়ে যোগাযোগ বাড়ানো এবং সহযোগিতা বৃদ্ধি করা।

এদিকে মিয়ানমারের কারেন ও মন রাজ্যে জান্তা বাহিনীর সঙ্গে আসন্ন মৌসুমে তীব্র লড়াই হবে বলে অগ্রিম ঘোষণা দিয়েছে। ১৯৪৭ সালে প্রতিষ্ঠিত কারেন ন্যাশনাল ইউনিয়ন (কেএনইউ) এই ঘোষণা দিয়েছে। কেএনইউর সশস্ত্র শাখা কারেন ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মি এবং কারেন ন্যাশনাল ডিফেন্স অর্গানাইজেশন এই মুহূর্তে কারেন ও মন রাজ্যে জান্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াইরত।

২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে অভ্যুত্থানের পর থেকে চলতি বছরের আগস্ট পর্যন্ত কেএনইউর সশস্ত্র শাখা জান্তা বাহিনীর সঙ্গে ৬ হাজার ৩৫৬ বার সংঘর্ষে জড়িয়েছে। এই সময়ে তাঁরা জান্তা বাহিনীর ৫ হাজার ১২৫ জন সেনাকে হত্যা করেছে। বিপরীতে নিজেরা হারিয়েছে ১৩৭ জন প্রতিরোধযোদ্ধা।

কেএনইউ দেশটির জান্তাবিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর জোট ন্যাশনাল ইউনিটি কনস্যুলেটিভ কাউন্সিলের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × five =

আরও পড়ুন