যুদ্ধ চাকমা নিহতের ঘটনায় ২০ জনকে আসামি করে মামলা

fec-image

বাঘাইছড়ি উপজেলা সদরের বাবুপাড়া নামক স্থানে নিজ দলের কর্মীর গুলিতে এমএন লারমা গ্রুপের পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (পিসিজেএসএস) সামরিক কমান্ডার বিশ্বমিত্র চাকমা ওরফে যুদ্ধ চাকমা নিহতের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নিহতের দাদা অশোক কুমার চাকমা বাদী হয়ে ১০ জন ও অজ্ঞাতনামা আরও ১০ জনসহ ২০ জনকে হত্যা মামলায় আসামি করা হয়েছে।

হত্যা মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে নিজ দলের কর্মির হাতে খুন হওয়া কিলার সুজন চাকমা, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বড়ঋসি চাকমা, দয়াসিন্ধু চাকমা, মনিময় চাকমা, পলক চাকমা সহ দশ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছ।

বাঘাইছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ আনোয়ার হোসেন খাঁন এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, হত্যা মামলায় ১০ জনকে আসামি করে আরও অজ্ঞাতনামা ৮ থেকে ১০ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আমরা তদন্ত সাপেক্ষে আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা করছি।

উল্লেখ্য, বুধবার রাত ৩টার সময় বাঘাইছড়ির বাবুপাড়া এলাকায় সশস্ত্র অবস্থায় দায়িত্ব পালনের সময় সামরিক কমান্ডার বিশ্বমিত্র চাকমা ওরফে যুদ্ধ চাকমাকে (৩৩) কাছ থেকেই গুলি করে হত্যা করেছে তার সাথেই দায়িত্ব পালনরত সুজন চাকমা। নিহত যুদ্ধ চাকমার বাড়ি বঙ্গলতলী ইউনিয়নের  দক্ষিণ হাগলাছড়া গ্রামে। তার পিতা বিশ্বমিত্র চাকমা। রাত যখন গভীর হয় তখন অন্য সদস্যরা ঘুমিয়ে পড়লে কৌশলে তাদেরকে তালা মেরে দেয় সুজন চাকমা। পরে এম ফোর অস্ত্র দিয়ে সামরিক কমান্ডার যুদ্ধ চাকমাকে গুলি করে মৃত্যু নিশ্চিত করে তিনটি অস্ত্র একে-৪৭ একটি,  এম ৪ একটি, পাইপ গান একটি ও ২৫০ রাউন্ড গুলি নিয়ে  পালিয়ে যায়।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আসামি, নিহতের, মামলা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen + two =

আরও পড়ুন