রাঙামাটির ইউপি নির্বাচন তফসিল বাতিল

95da89adeb9f9f0a9c4b47c91b6661ec-

মনোনয়নপত্র জমা দিতে বাধার অভিযোগে রাঙামাটির ১০ উপজেলার ৪৯ ইউপির ভোট পিছিয়ে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও এখন এসব ইউপিতে ভোট হবে ষষ্ঠ ও সর্বশেষ ধাপে, ৪ জুন। প্রার্থিতার জন্য আবেদন করা যাবে নতুন করে।

সোমবার ইসি সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, “রাঙামাটি জেলার অনেক ইউপিতে মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারেনি প্রার্থীরা। বিষয়টি আমলে নিয়ে সংশ্লিষ্ট ইউপির ভোট ষষ্ঠধাপে নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। সেক্ষেত্রে প্রার্থীরা নতুন করে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার সুযোগ পাবেন।”


অারও দেখুন

রাঙামাটির ১৯টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শূন্য

রাঙামাটির ৪৯ ইউপিতে আ.লীগ ৩০ ও বিএনপির ২২ প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিল


তৃতীয় ধাপের প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র বাছাই শুরু হবে ২৯ মার্চ ও ৩০ মার্চ।

ইসির নির্বাচন ব্যবস্থাপনা ও সমন্বয় শাখার সহকারী সচিব আশফাকুর রহমান জানান, মনোনয়নপত্র জমা দিতে বাধা ও ভয়ভীতির বিষয়ে রাঙামাটি জেলা প্রশাসকের পাঠানো প্রতিবেদন আমলে নিয়ে ইসি এসব উপজেলার সংশ্লিষ্ট ইউপির ভোটের তারিখ স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

অন্যমিডিয়া

এদিকে নির্বাচন কমিশনে প্রতিবেদন পাঠালেও কয়টি ইউপিতে একক প্রার্থী রয়েছে এবং কোথায় প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র জমা দিতে বাধার সম্মুখীন হয়েছে সে বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে চাননি জেলা প্রশাসক সামসুল আরেফিন।

তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ইসির নির্দেশনা পাওয়ার পরই পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানাতে পারব।”

ইসি কর্মকর্তারা জানান, তৃতীয় ধাপে অন্তত ৪০টি ইউপিতে একক প্রার্থী রয়েছে। এরমধ্যে অন্তত ৩০টি ইউপিতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির কোনো চেয়ারম্যান প্রার্থী নেই।

এর আগে দ্বিতীয় ধাপে মনোনয়নপত্র জমায় বাধার অভিযোগে ফেনীর ফুলগাজী উপজেলার সব ইউপির ভোট বন্ধ করে ইসি। পরশুরাম উপজেলার তিন ইউপিতে মনোনয়নপত্র জমার সময় একদিন বাড়ানো হয়েছিল।

তৃতীয় ধাপে রাঙামাটি জেলার ইউপিগুলোর একক প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে না পারলেও একই ধাপে অনুষ্ঠেয় অন্যান্য জেলার প্রার্থীদের সে সুযোগ থাকছে।

এ বিষয়ে ইসি সচিব সিরাজুল ইসলাম বলেন, “রাঙামাটির বাইরে যারা একক প্রার্থী রয়েছেন বাছাই শেষে তাদের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার সুযোগ রয়েছে। এদের সংখ্যা তেমন বেশি নয়। পাঁচ জনের মতো হবে।”

৪ জুন শেষ ও ষষ্ঠ ধাপে ইউপি ভোটের দিন নির্ধারিত রয়েছে। ২৮ এপ্রিল থেকে এ ধাপের ইউপিতে মনোনয়ন জমার সুযোগ দেওয়া হতে পারে।

প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপে মনোনয়নপত্র জমা দিতে ব্যর্থ হওয়ার প্রেক্ষাপটে ক্ষমতাসীন দলের অনুসারীদের বিরুদ্ধে বিএনপি ভয়-ভীতি দেখানোর অভিযোগ আনলেও ওই সময় ইসি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় শ’ খানেক প্রার্থীকে নির্বাচিত ঘোষণা করে।

তৃতীয় ধাপে এ সংখ্যা কোনোভাবেই ১০ জনের বেশি হবে না বলে জানা গেছে।

সূত্র : বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × 3 =

আরও পড়ুন