রুমায় ২৪ ঘন্টা পর পালিয়ে এলো অপহৃত দুই চালক

fec-image

বান্দরবানের রুমা উপজেলার মিনঝিরি পাড়া থেকে গত সোমবার দুপুরে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের হাতে অপহরণ হন গাড়ি চালক বাসু কর্মকার (৩২), নয়ন জলদাস (২৯) ও মো: মিজান (৩০)। ঘটনার প্রায় ২৪ ঘন্টা পর অপহৃত এই তিনজনের মধ্যে নয়ন ও মিজান অপহৃতদের কাছ থেকে কৌশলে পালিয়ে এসেছে। বর্তমানে তারা ঘটনাস্থল এলাকার নিকটবর্তী নিরাপত্তাবাহিনীর একটি ক্যাম্পে আশ্রয় নিয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

জানা গেছে, সোমবার (১৯আগস্ট) রুমা উপজেলার সদর ইউনিয়নের মিনজিরি পাড়া মুখ থেকে অস্ত্রধারী সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা এই তিন গাড়ি চালককে অপহরণ করে নিয়ে যায়। ঘটনার কয়েক ঘন্টা পর অপহরণকারীরা মঙ্গলবার সকালে তিন গাড়ি চালককে মুক্তি দেয়ার শর্তে মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমানের কাছে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছিল। পরে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় অপহৃতদের মধ্যেই দুইজন কৌশলে পালিয়ে আসে।

রুমা উপজেলা পরিষদের সাবেক নারী ভাইস চেয়ারম্যান জিংএংময় বম জানান- অপহরণ হওয়া তিনজনের মধ্যে দুইজন পালিয়ে এসেছে বলে এলাকার লোকজনের কাছ থেকে শুনেছি। তবে বিস্তারিত কিছু জানাতে পারেননি তিনি।

রুমা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শৈমং মারমা জানান- স্থানীয় লোকজনের কাছ থেকে অপহৃত তিনজনের মধ্যে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পালিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছে। বর্তমানে তারা মুংনুং পাড়া সেনা হেফাজতে আছে।

রুমা থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম বলেন- সেনা ও আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযানের মুখে অপহৃতদের মধ্যে দুইজনকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয় দুষ্কৃতিকারীরা। অপরজনকে উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত আছে।

প্রসঙ্গত, চলতি মাসের ৫ আগস্ট ৩০ লাখ টাকা চাঁদা চেয়ে মালিক সমিতির কাছে চিঠি দেয় মগ লিবারেশন পার্টি নামে একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ। ৮ আগস্টের মধ্যে চাঁদা পরিশোধের কথা উল্লেখ করা হয় ওই চিঠিতে। কিন্তু ঈদের কারণে ব্যস্ত থাকায় সন্ত্রাসীদের দেওয়া চিঠির গুরুত্ব দেয়নি মালিক সমিতি। পরে ১৯ আগস্ট তিন জীপ চালককে অপহরণ করে নিয়ে যায় তারা। এদিকে অপহৃতদের উদ্ধারে গতকালও সেনাবাহিনী ও পুলিশের যৌথ অভিযান চালিয়েছে।

বান্দরবান পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলী হোসেন বলেন, অপহৃতদের উদ্ধারে যৌথ অভিযান অব্যাহত রয়েছে। আশা করি অপহৃতদের খুব শীঘ্রই আমরা উদ্ধার করতে পারব।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: পালিয়ে এলো অপহৃত দুই চালক, রুমায়
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

sixteen − eleven =

আরও পড়ুন