লামায় দেড় লক্ষাধিক লোক পানিবন্দী

fec-image

বান্দরবানের লামায় টানা ভারি বর্ষণে ব্যাপক হারে পাহাড় ধসে পাঁচ শতাধিক ঘর-বাড়ি বিধস্ত হয়েছে। পাহাড়ি ঢলের পানিতে প্লাবিত হয়েছে উপজেলা সদর ও লামা পৌর এলাকার নিম্নাঞ্চল। উপজেলার সাথে ইউনিয়নগুলোর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। এসব এলাকায় দেড় লক্ষাধিক লোক পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। থেমে থেমে বৃষ্টি হওয়ার কারণে পানির অবস্থা অপরিবর্তিত রয়েছে। এদিকে প্রবল বর্ষণে নাইক্ষ্যংছড়ির নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। বিধ্বস্ত হয়েছে কাঁচা বাড়ি-ঘর।

লামা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা সানজিদা বিনতে সালাম জানান, গত তিনদিনের পাহাড়ি ঢল ও বন্যার পানিতে আমন বীজতলা অধিকাংশ বীজতলা নষ্ট হয়ে গেছে। একইভাবে উপজেলায় ফলদ ও বনজ বাগানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

লামা পৌরসভার মেয়র মো. জহিরুল ইসলাম জানান, বন্যা ও পাহাড় ধসের ঘটনায় পৌরসভায় শতাধিক ঘর-বাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। লামা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মোস্তফা জামাল জানান, উপজেলার বিভিন্নস্থানে চার শতাধিক ঘর-বাড়ি আংশিক এবং পূর্ণাঙ্গ বিধ্বস্ত হয়েছে। ধসে গেছে গ্রামীন রাস্তাঘাট ও কালভার্ট।

জেলা ত্রাণ অফিস সূত্রে জানাগেছে, জরুরী ভিত্তিতে লামা পৌরসভার জন্য ২০ মেট্রিক টন চাল এবং ২লক্ষ ২৫ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের ৩ মেট্রিক টন চাল এবং ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × three =

আরও পড়ুন