লামায় প্রবাসীর স্ত্রী-কন্যা খুনে প্রতিবেশী যুবক আটক

fec-image

লামায় প্রবাসীর দু’কন্যা ও স্ত্রীকে খুনের ঘটনায় উত্তম বড়ুয়া নামক এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২৫ মে) দিনগত রাতে লামার পৌসভার ১নং ওয়ার্ডের চাম্পাতলী এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে ওই এলাকা প্রমদ বড়ুয়ার ছেলে। লামা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

ওসি বলেন, তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বৃস্পতিবার (২৭ মে) আদালতে দশ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হবে।

এর আগে শুক্রবার (২০ মে) দিনগত রাত তিনটার দিকে লামা পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের চাম্পাতলী গ্রামের তালাবব্ধ বাসা থেকে প্রবাসী নুর মোহাম্মদের দু’কন্যা নুর-এ জান্নাত রীদা প্রকাশ নুরী (১০) ও সুমাইয়া ইয়াছমিন প্রকাশ রাফি (১৬) এবং স্ত্রী মাজেদা বেগম (৩৭) এর রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

লাশের প্রাথমিক সুরতহাল প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, বাসার রান্না ঘরের পাশের কক্ষের মেঝেতে মাত্র ১০ মাস বয়সী কন্যা নুর-এ জান্নাত রীদা প্রকাশ নুরীর লাশ পাওয়া যায়। তার অদূরে শয়ন কক্ষের মেঝেতে মা মাজেদা বেগম এবং খাটের উপর দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী সুমাইয়া ইয়াছমিন প্রকাশ রাফি’র (১৬) লাশ পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে কন্যা সুমাইয়া ইয়াছমিন প্রকাশ রাফি ও তার মা মাজেদা বেগম এর শরীরে ধর্ষণের আলামত রয়েছে।

একইভাবে তাদের তিন জনের শরীর, কপাল, পিঠ ও বুকে রক্তাক্ত যখমের চিত্র। প্রবাসীর ওই বাসায় ডাকাতির আলামতও রয়েছে। খোয়া গেছে, নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার।

এই ঘটনায় মৃত মাজেদা বেগমের মা লাল মতি বেগম বাদী হয়ে শনিবার (২১ মে) লামা থানায় মামলা করেছেন অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে। ঘটনার পরই প্রবাসী নুর মোহাম্মদের দু’ভাইসহ প্রায় আটজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নেয় পুলিশ। এর মধ্যে এই প্রথম প্রবাসী নূর মোহাম্মদের পার্শ্ববর্তী বাসার মাদকাসক্ত যুবক উত্তম বড়ুয়াকে গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদে রিমান্ডে নেয়।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আটক, খুন, প্রতিবেশী
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fourteen − 8 =

আরও পড়ুন