শাকিবের তৃতীয় বিয়ে: বুবলীকে দায়ী করছেন অপু

fec-image

এই বছরের শেষ নাগাদ বিয়ে করবেন ঢালিউড কিং শাকিব খান এমনটাই খবর ভেসে বেড়াচ্ছে মিডিয়া পাড়ায়। তবে হঠাৎ করেই নায়কের বিয়ের সিদ্ধান্তে প্রশ্ন তুলেছেন নেটিজেনরা। শাকিবের সাবেক দুই স্ত্রী বিষয়টি এড়িয়ে গেলেও পাশ কাটিয়ে কিছু কথা বলছেন ঠিকই। তবে ঘটনাটির জন্য একরকম বুবলীকে দায়ী করছেন শাকিবের প্রথম স্ত্রী অপু বিশ্বাস।

নায়কের বিয়ের গুঞ্জনের আগেই দুই সাবেক স্ত্রীর জন্য তার বাড়ির দরজা বন্ধের কড়া বার্তা এসেছে। সব ঠিকঠাক থাকলে চলতি বছরেই বিয়ের করতে যাচ্ছেন শাকিব খান।

তবে জানা গেছে, সম্প্রতি অপু-বুবলীর একাধিক সাক্ষাৎকারকে কেন্দ্র করে বিরক্ত শাকিব খান ও তার পরিবার। দুজনেই নিজেদের শাকিবের বৈধ স্ত্রী বলে দাবি করেছেন। যেখানে এই নায়ক মনে করেন, বুবলী-অপু দুজনেই তার জন্য অতীত।

শুধু তাই নয়, অপু-বুবলী দুজনেরই দাবি- শাকিব খানের বাড়িতে তাদের নিয়মিত যাতায়াত হয়। এই নায়কের পরিবারের সঙ্গেও খুব ভালো সম্পর্ক। এমনকি শাকিবের সঙ্গেও ‘কোয়ালিটি টাইম’ কাটানো হয়।

এ বিষয়গুলোকে কেন্দ্র করেই শাকিবকে নতুন করে বিয়ে করানোর বিষয়ে ভাবছে তার পরিবার। একই সঙ্গে অপু-বুবলীকেও নিষেধ করা হয়েছে শাকিবের বাসায় যাতায়াতে।

সম্প্রতি ঘটে যাওয়া এ ইস্যুগুলো নিয়ে একটি বেসরকারি টেলিভিশনে খোলামেলা কথা বলেছেন অপু বিশ্বাস। সেখানে তিনি বলেছেন, বিরক্ত হয়েই শাকিবের পরিবার এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

শাকিবের বাড়িতে যাতায়াত বন্ধ হওয়া প্রসঙ্গে অপু বিশ্বাস বলেন, মানুষ যখন অতিরিক্ত কিছু করে ফেলেন, তখন একজনের দোষ অন্যজনের কাঁধে চলে আসে। বিষয়টা ঠিক এরকমই হয়েছে। বিরক্ত হয়েই শাকিবের পরিবার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এ সময় বুবলীর কাণ্ডকীর্তি তুলে ধরে অপু বিশ্বাস আরও বলেন, আমি শাকিবের সঙ্গে কোয়ালিটি টাইম পার করি; আমাদের বাচ্চা অনেক সময় সেই সুযোগ করে দেয়। এরপর কৌশলে শাকিবের সঙ্গে ছবি তুলে এনে তা সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করে সম্পর্ক টিকে আছে, প্রমাণ করতে চায়- সেসবে অবশ্যই শাকিব ও শাকিবের পরিবার বিরক্ত হবেনই।

শাকিব খানের বিয়ে প্রসঙ্গে অপু বলেন, যাদের বিষয়ে কথা হচ্ছে, তারা সবাই অ্যাডাল্ট। প্রত্যেকেরই নিজের সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার আছে। ভালো লাগা আছে। তবে আমার আচরণে শাকিবের পরিবার এমন সিদ্ধান্ত নেবে, এটা বিশ্বাস করি না। শাকিবকে নিয়ে অন্য একজনের (বুবলী) কথাবার্তা কেমন, তা এখন সবার জানা। তার কারণে শাকিবের পরিবার বিরক্ত হতে পারে।

এদিকে শাকিবের বাড়িতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা সম্পর্কে বুবলী বলেছেন, আমাকে ওই বাসায় আমন্ত্রণ জানানো হয় বলেই যাই। তার বাসায় যাব কী যাব না- এটা যেমন শাকিবের সিদ্ধান্ত হতে পারে, তেমনি আমারও সিদ্ধান্ত হতে পারে। কারণ আমাদের সন্তান আছে। আর সন্তানের নিরাপত্তাই সবার আগে।

এদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে শাকিবের পারিবারিক সূত্র জানিয়েছিলেন পরিবারের মতেই এবার অতীত ভুলে সংসারী হবার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এরপর থেকেই ভক্তদের কৌতুহল কোথায় বসবে শাকিব খানের বিয়ের আসর? এ বিষয়েও নাকি চিন্তা করছেন পরিবারের সদস্যরা।

আগামী মাসের মাঝামাঝিতে ভারত থেকে দেশে ফেরার কথা আছে শাকিবের। ফেরার পর বিয়ের অগ্রগতি সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানা যাবে।

গুঞ্জন চলছে, যুক্তরাজ্য থেকে চিকিৎসা বিষয়ে লেখাপড়া করে দেশে ফেরা এক ডাক্তার মেয়ের সঙ্গে বিয়ের আলোচনা এগোচ্ছে শাকিবের। একই সঙ্গে শাকিবের পরিবার হুঁশিয়ারি দিয়েছে, শাকিবকে নিয়ে কোনো রকম মিথ্যাচার করলেই আইনের আশ্রয় নিতে বাধ্য হবেন তারা।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন