২৩০ টি এমপিটি সিমসহ রোহিঙ্গা যুবক আটক

fec-image

রোহিঙ্গার হাতে হাতে স্বদেশী সিম, ঘটাচ্ছে অপরাধমূলক কর্মকান্ড

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিভিন্ন অপারেটরের থ্রি-জি ফোর-জি বন্ধ করে দিলেও রোহিঙ্গারা অবাধে স্বদেশী এমপিটি সিমকার্ডের মাধ্যমে নেট ব্যবহার করছে। ক্যাম্পে বিভিন্ন অলিতে গলিতে এই মিয়ানমারের সিম কার্ড পাওয়া যাচ্ছে। এ সিম কার্ড ব্যবহার করে নানা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ছে রোহিঙ্গারা।

বুধবার (২ অক্টোবর) রাতে উখিয়া থানা পুলিশের উখিয়ার কুতুপালং বাজারে অভিযান চালিয়ে ২৩০টি এমপিটি সিম কার্ড সহ ১ রোহিঙ্গা যুবককে আটক করেছে।

আটককৃত রোহিঙ্গা যুবক হলেন- উখিয়ায় আশ্রিত বালুখালী রোহিঙ্গা শিবিরের ক্যাম্প-১ এর আওতাধীন ব্লক-এ৩২ এর নুরুল আলমের ছেলে মোঃ করিম (৩০)।

অভিযানে নেতৃত্বদানকারী এস আই প্রভাত বড়ুয়া বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার রাতে কুতুপালং বাজারে অভিযান চালিয়ে ক্যাম্পে বিক্রি করতে আনা ২৩০টি মিয়ানমারের সিমসহ উক্ত রোহিঙ্গা যুবককে আটক করতে সক্ষম হই।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রমতে- মিয়ানমার থেকে সুকৌশলে রোহিঙ্গাদের ব্যবহারের জন্য সিমকার্ডগুলো আনা হয়েছিল।

মিয়ানমার সীমান্তবর্তী উপজেলা হওয়ায় উখিয়া-টেকনাফে দেশটির বিভিন্ন মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটরের সিমকার্ড সচল থাকায় সুযোগের ব্যবহার করছে উখিয়া-টেকনাফের ৩২টি শরণার্থী শিবিরে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গারা।

সম্প্রতি রোহিঙ্গা স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী বাহিনী দ্বারা খুন-নির্যাতন, মাদক সংশ্লিষ্টতা, প্রত্যাবাসনে একজনও রাজি না হওয়া এবং রোহিঙ্গাদের মহাসমাবেশের মতো নানা ঘটনায় দেশব্যাপী বিরুপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হলে শরণার্থী শিবির গুলোতে প্রশাসনের কঠোর নজরদারী বাড়ানোর পাশাপাশি সরকার বিভিন্ন মোবাইল অপারেটরের থ্রি জি, ফোরজি নেটওয়ার্ক বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয়।

ফলে এক মাস যাবৎ বিভিন্ন মোবাইল অপারেটরের দূর্বল নেটওয়ার্ক দিয়ে নিজেদের মধ্যে সক্রিয় যোগাযোগ করতে না পেরে মিয়ানমারের নেটওয়ার্ক নির্ভর হয়ে পড়েছে আশ্রিত রোহিঙ্গারা। এতে করে স্থানীয়রা মোবাইল নেটওয়ার্ক ভোগান্তিতে পড়লেও আত্মীয়-স্বজনদের মাধ্যমে ঠিকই মিয়ানমার থেকে সিমকার্ড এনে নানা অপরাধমূলক কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে আশ্রিত রোহিঙ্গারা।

স্থানীয় সূত্র জানায়, কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফে আশ্রিত রোহিঙ্গারা অবৈধভাবে দেশীয় মোবাইল সিম ব্যবহার করছে। বিটিআরসি সম্প্রতি নেটওয়ার্ক নিয়ন্ত্রণসহ নানা উদ্যোগ নেয়ায় রোহিঙ্গারা মিয়ানমার সিম ব্যবহার করছে। এসব সিমের উচ্চ নেটওয়ার্ক সম্পন্ন হওয়ায় সহজে উভয় দেশের সীমান্তের অনেক ভেতরে কাজ করছে বলে জানা গেছে।

উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল মনসুর বলেন- মিয়ানমার থেকে সিমকার্ডগুলো নিয়ে আসা এক রোহিঙ্গাকে আটক করা হয়েছে। আটক রোহিঙ্গা যুবককে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে এবং তার বিরুদ্ধে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫-(২) উখিয়া থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন- টেকনাফ ও উখিয়া উপজেলায় শরণার্থী শিবিরগুলোতে নানা ধরণের অপরাধমূলক কর্মকান্ড রোধে বাংলাদেশ সরকার সংশ্লিষ্ট এলাকায় মোবাইল নেটওয়ার্ক থ্রি জি ও ফোর জি বন্ধ করার পাশাপাশি নেটওয়ার্ক কমিয়ে দূর্বল করে দেওয়া হয়েছে। তবে বেশ কদিন যাবত রোহিঙ্গারা নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ সক্রিয় রাখতে মিয়ানমারের সিমকার্ড এনে এখানে ব্যবহার করে যাচ্ছে বলে অভিযোগ ছিল।

ওসি আরো বলেন, রোহিঙ্গারা স্বদেশী সিমকার্ড ব্যবহার করে বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকান্ড ঘটাচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: এমপিটি সিমকার্ড, বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন, বিটিআরসি
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ten + twenty =

আরও পড়ুন