গান্ধীজির সমালোচনা করে ফের আলোচনায় কঙ্গনা

fec-image

বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) দিল্লিতে সেন্ট্রাল ভিস্তা অ্যাভিনিউ প্রকল্পের উদ্বোধন করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দেশের একাধিক নেতা ও তারকারা। অনুষ্ঠানে নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর মূর্তি উন্মোচন করেন মোদী। এ অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত। অনুষ্ঠান শুরুর আগেই সংবাদমাধ্যমের কাছে বোমা ফাটালেন এ অভিনেত্রী।

অনুষ্ঠানে কঙ্গনা বলেন, আমরা যে স্বাধীনতা পেয়েছি তা নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু ও বীর সাভারকরের মতো বিপ্লবীদের কারণে। এই স্বাধীনতা আমরা ভিক্ষা করে পাইনি, স্বাধীনতা পেয়েছি নিজেদের অধিকারে, এর জন্য লড়াই করতে হয়েছে আমাদের। আমি নেতা সুভাষ চন্দ্রের অনুগামী, আমি একেবারেই গান্ধীবাদী নই। এটা হয়তো অনেক লোককে বিরক্ত করবে যে, আমি এই ধরনের কথা বলছি। তবে প্রত্যেকেরই একটা নিজস্ব এবং পছন্দের আদর্শ রয়েছে। আমি বিশ্বাস করি যে, নেতাজি এবং সাভারকরের মধ্যে লড়াইয়ের আগুন লুকিয়ে আছে।

কঙ্গনার কথায়, নেতাজি সুভাষ চন্দ্র ক্ষমতার জন্য ক্ষুধার্ত ছিলেন না, স্বাধীনতার জন্য ক্ষুধার্ত ছিলেন।

এদিকে, কঙ্গনার এমন মন্তব্যে সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়। অনেকেই কঙ্গনাকে কটাক্ষ করেছেন। নেটিজেনদের মতে, গান্ধীজিকে সমালোচনা করে কঙ্গনা ঠিক কাজ করেননি।

একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্য করে খবরে থাকতে জুড়ি নেই বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াতের। গত কয়েক বছরে কঙ্গনা যা ইমেজ বানিয়েছেন, তাতে কঙ্গনা বিতর্ক খুঁজে বেড়ান না, বরং বিতর্ক কঙ্গনাকে ঠিক খুঁজে পেয়ে যায়। এবার যেমন কঙ্গনার ইন্দিরা লুক তাকে টেনে নিয়ে ফেললো বিতর্কের মাঝে।

সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছে কঙ্গনা রানাওতের নতুন ছবি ‘ইমারজেন্সি’র টিজার। টিজারেই কঙ্গনা রানাওতের ইন্দিরার লুক দেখে আল্পুত পুরো বলিউড। এই ছবিতে যে কঙ্গনা বাজিমাত করবেন, তার ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছে টিজারেই। তবে কঙ্গনাকে ইন্দিরা লুক দেখে অনেকে প্রশংসা করলেও, কঙ্গনার ওপর ক্ষেপে গিয়েছে কংগ্রেসের একাংশ। মুম্বাইয়ের এক সংবাদ মাধ্যম থেকে পাওয়া খবর অনুযায়ী, কঙ্গনাকে ইন্দিরার লুকে দেখে মোটেই খুশি নন কংগ্রেস দল।

নতুন ছবি ‘ইমারজেন্সি’র প্রথম লুক প্রকাশ্যে আসতেই ফের খবরের শিরোনামে কঙ্গনা রানাওয়াত। মাথায় কাঁচা-পাকা চুল, সামান্য মেকআপে ইন্দিরা গান্ধীর লুক কঙ্গনা সবার নজর কেড়ে নিয়েছেন। মাত্র ১ মিনিট ২১ সেকেন্ডের টিজারে কঙ্গনা প্রমাণ করে দিলেন সিনেমার পর্দায় ইন্দিরা চরিত্র তার জন্যই যেন তৈরি হয়েছে। তবে শুধুই অভিনয় নয়, এই ছবি কঙ্গনা তৈরি করছেন নিজের হাতে। পরিচালক সাই কবীরের হাত থেকে পরিচালনার দায়িত্ব ছিনিয়ে নিয়ে কঙ্গনাই এই ছবির পরিচালক।

এ রকম ঘটনা কঙ্গনা আগেও ঘটিয়েছেন। তার প্রযোজনা সংস্থায় তৈরি ‘মণিকর্ণিকা: দ্য ক্যুইন অব ঝাঁসি’ ছবির শুটিং কিছু এগোতেই পরিচালক কৃশকে সরিয়ে নিজেই দায়িত্ব নিয়েছিলেন ছবি তৈরির। ফের পরিচালকের আসনে বসে কঙ্গনা জানান, পরিচালক হিসেবে এটাই আমার দ্বিতীয় ছবি। ইন্দিরা গান্ধীর মতো ব্যক্তিত্বকে সিনেমায় পর্দায় নিয়ে আসার জন্য আমি সবদিক থেকে তৈরি। তবে এটিকে আমি ইন্দিরার বায়োপিক বলবো না। বরং এই ছবি বিরাটমাপের এক অংশের ছবি।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × four =

আরও পড়ুন