লংগদুতে

রাবেতা মডেল উচ্চ বিদ্যালয় প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীদের পুনর্মিলনী

fec-image

রাঙামাাটির লংগদু  উপজেলার ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রাবেতা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীদের পুনর্মিলনী জাঁকজমকের সাথে অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ৩০ বছর পূর্তি উপলক্ষে অনুষ্ঠিত হলো সাবেক শিক্ষার্থীদের এবারের এ মিলন মেলা। এটি রাবেতা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের দ্বিতীয় পুনর্মিলনী। এর আগে ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত হয়েছিল প্রথম পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান।

শুক্রবার (৭ জুন ২০১৯) বিদ্যালয়ের মাঠ প্রাঙ্গণে প্রাক্তন ছাত্রছাত্রী পরিষদের আহ্বায়ক সৈয়দ ইবনে রহমতের সভাপতিত্বে অধিবেশনে স্বাগত  বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরুল করিম।

বিদ্যালয়ের  প্রাক্তন ছাত্র খন্দকার  মো. ফজলুর রহমান সুজনের পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লংগদু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক সরকার। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, এই বিদ্যালয়টি অত্র উপজেলায় একটি সনামধন্য বিদ্যালয়। এখান থেকে যারাই পাশ করে বের হয়েছে তারা প্রায় সকলেই ভালো অবস্থানে আছে, কেউ বেকার নেই।

তিনি আরো বলেন, এ বিদ্যালয়টিকে নিয়ে একটি কুচক্রী মহল ষড়যন্ত্রে লিপ্ত আছে। আমি আমার অবস্থান থেকে তা মোকাবেলা করার চেষ্টা করছি। তোমরা যারা প্রাক্তন ছাত্রছাত্রী আছো এ ব্যাপারে তোমাদেরও সহযোগিতা কামনা করছি।

 বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লংগদু উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন, লংগদু উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও রাবেতা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক সহকারী প্রধান শিক্ষক এখলাস মিঞা খান, লংগদু উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান মীর সিরাজুল ইসলাম ঝান্টু,  লংগদু উপজেলা মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান আনোয়ারা বেগম, সাবেক উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান মাও. নাছির উদ্দিন, রাবেতা প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর নুরুল ইসলাম শাহিন, লংগদু মডেল কলেজের প্রভাষক হারুন অর রশিদ, রাবেতা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক আল মামুন ইবনে মিজান, রাবেতা হাসপাতাল জামে মসজিদেরর পেশ ইমাম  এ এল এম সিরাজুল ইসলাম, করল্যাছড়ি আর এস উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহিমসহ বিদ্যালয়ের সাবেক ও বর্তমান কর্মরত শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ এবং এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এ সময় উপস্থিত ছিলেন ।

অনুষ্ঠানে এর আগে ১৯৯৬ সাল হতে ২০১৯ সাল পর্যন্ত প্রতি ব্যাচের শিক্ষার্থীদের পরিচিতি পর্বের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের প্রথম অধিবেশন শেষ হয়।

দুপুর ২.৩০ মিনিটে শুরু হওয়া দ্বিতীয় অধিবেশনে ছিলো এবং প্রতি ব্যাচের পক্ষ থেকে শিক্ষার্থীদের স্মৃতি চারণ। স্মৃতিচারণ শেষে ছিল  ব্যাচ ওয়ারী ফটোশেসন, ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, র‌্যাফেল ড্র, পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান। সব শেষে সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আগত ছায়াতরু ব্যান্ডের পরিবেশনায় অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ  সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা । এতে বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীরাও অংশগ্রহণ করে অনুষ্ঠানকে প্রাণবন্ত করে তোলেন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × one =

আরও পড়ুন